ঢাকা, শনিবার, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০২ জুলাই ২০২২, ০১ জিলহজ ১৪৪৩

তথ্যপ্রযুক্তি

টেকসই উন্নয়নের জন্য ডিজিটাল তথ্যের দীর্ঘমেয়াদী সংরক্ষণ গুরুত্বপূর্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৫৫ ঘণ্টা, মে ২৬, ২০২২
টেকসই উন্নয়নের জন্য ডিজিটাল তথ্যের দীর্ঘমেয়াদী সংরক্ষণ গুরুত্বপূর্ণ

ঢাকা: সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আশরাফ আলী খান খসরু বলেছেন, বিজ্ঞান, শিক্ষা, সংস্কৃতি এবং সমাজের টেকসই উন্নয়নের জন্য ডিজিটাল তথ্যের দীর্ঘমেয়াদী সংরক্ষণ এখন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।  

বুধবার রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকার ওয়াইডব্লিউসিএ কনফারেন্স হলে ৫ম ডব্লিউএসডব্লিউডি সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক এম হাবিবুর রহমান।  

কমিউনিটি সোশ্যাল ওয়ার্ক প্র্যাকটিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের অ্যাসোসিয়েশনে আয়োজিত ডব্লিউ এস ডব্লিউ ডি ২০২২: ‘কো-বিল্ডিং এ নিউ ইকো-সোশ্যাল ওয়ার্ল্ড: কাউকে পিছিয়ে না-এসডিজি এবং কমিউনিটি স্থিতিস্থাপকতা অর্জন’ শীর্ষক তিন দিনব্যাপি এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এতে ৩৫টি দেশের ১২০ জনেরও বেশি বিখ্যাত ব্যক্তিরা অংশগ্রহণ করেন এবং তাদের ধারণা ও মতামত উত্থাপন করেন। সম্মেলনে অনেকে সরাসরি এবং অনলাইনে অংশগ্রহণ করেন।  

প্রধান অতিতিথির বক্তব্যে সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, সম্মেলনের শিরোনাম বা থিম হলো আমাদের সকলের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের একজন সদস্য হিসেবে আমি দেখতে পাচ্ছি, এ আয়োজন বিবেকবান সমাজ পরিবর্তনে বিশ্বজুড়ে একটি বিশাল জ্ঞানভিত্তিক আয়োজন। টেকসই সমাজ ব্যবস্থা গঠনে আমি সুশীল সমাজের সঙ্গে এ বিষয়ে একযোগে কাজ করতে চাই।  

তিনি বলেন, একটি নতুন টেকসই সামাজিক বিশ্ব গড়তে এবং সমাজ উন্নয়নে অবদান রাখতে পারে এমন গঠনমূলক সামাজিক দক্ষতার সঙ্গে আমাদের মতামত ও ধারণা বিনিময় করতে হবে। পাশাপাশি বিজ্ঞান, শিক্ষা, সংস্কৃতি এবং সমাজের টেকসই উন্নয়নের জন্য ডিজিটাল তথ্যের দীর্ঘমেয়াদী সংরক্ষণ করতে হবে। বর্তমান সময়ে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।  

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমি বিশ্বাস করি যে- এই প্রচেষ্টা অবশ্যই সামাজিক কাজ এবং সামাজিক পরিসেবাকে আরও ভাল অবস্থানে আনতে এবং এসডিজি অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।  

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি কোরিয়ার ডিএএসডব্লিউ এর প্রেসিডেন্ট সুগ পিয়ো কিম; ফিলিপাইন সাউদার্ন লেইট স্টেট ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক আইভি জি ইয়েপেস ; দ্য পিপলস ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-পিইউবি ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আবদুল মান্নান চৌধুরী; জাপান মহিলা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. মারিকো কিমুরা বক্তব্য রাখেন।  

সম্মেলনের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন পর্বে সভাপত্বি করেন, রয়্যাল ইউনিভার্সিটি- ঢাকা’র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. পিসি সরকার; মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন, ইউনিভার্সিটি অফ সেন্স মালয়, মালয়েশিয়া’র ডেপুটি ভাইস-চ্যান্সেলর অধ্যপক ড. আজলিন্দা আজমান এবং গ্লোবাল ইনস্টিটিউট অফ সোশ্যাল ওয়ার্ক, সিঙ্গাপুরের প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ড. টি এ এন নগহ টিঅং।

বাংলাদেশ সময়: ০০৫০ ঘণ্টা, মে ২৬, ২০২২
এমআইএইচ/এমএইচএম 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa