ঢাকা, সোমবার, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

তথ্যপ্রযুক্তি

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের অজানা ভবিষ্যতের জন্য তরুণদের প্রস্তুত করতে হবে

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯৫৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ১০, ২০২২
চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের অজানা ভবিষ্যতের জন্য তরুণদের প্রস্তুত করতে হবে

ঢাকা: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের অজানা ভবিষ্যতের নতুন কর্মসংস্থানের জন্য তরুণ প্রজন্মকে প্রস্তুত করার আহ্বান জানিয়েছেন।

শনিবার (০৯ এপ্রিল) ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) এর উদ্যোগে ‘ফিউচার অব এডুকেশন ইন বাংলাদেশ পারেসপেক্টিভ' শীর্ষক সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনকালে উপাচার্য এ আহ্বান জানান।

সেমিনারে উপাচার্য বলেন, ভবিষ্যতে কোন ধরনের কর্মসংস্থান থাকবে তা এখনও আমাদের অজানা। অনেক কর্মসংস্থান হারিয়ে যাবে তবে কিছু কর্মসংস্থান সবসময়ই থাকবে। আবার নতুন কর্মসংস্থানও সৃষ্টি হবে। এমন একটি অজানা ভবিষ্যতের জন্য তরুণ প্রজন্মকে প্রস্তুত করা কঠিন হলেও আমাদের সেদিকে এগিয়ে যেতে হবে।

তিনি বলেন, ভবিষ্যতের কর্মসংস্থান যেহেতু খুব কম সময়ের মধ্যে পরিবর্তিত হবে তাই আমাদের শিক্ষার্থীদের একটি নির্দিষ্ট দক্ষতা নিয়ে বসে থাকলে চলবে না। শিক্ষার্থীদের আরও নতুন নতুন দক্ষতা অর্জন করতে হবে এবং সেই দক্ষতাটি পরিবর্তিত হলে সঙ্গে সঙ্গে পূর্বের দক্ষতা ভুলে গিয়ে নতুন আরেকটি দক্ষতা অর্জন করতে হবে। এই প্রক্রিয়াটি নতুন হওয়ায় এটি এখন আমাদের সামনে চ্যালেঞ্জ। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে নেতৃত্ব দিতে হলে আমাদের এই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করতেই হবে।

এই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করতে হলে আমাদের শিক্ষায় ফ্লেক্সিবিলিটি, ডিফারেনশিয়েট, স্বাধীনতা, মানবিকীকরণ, ব্যক্তিগতকরণ এবং বিশেষায়িতকরণের মতো বিষয়গুলো নিয়ে আসতে হবে।

সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে বয়সের সীমাবদ্ধতা থাকা উচিত নয়। যে কোন ডিসিপ্লিন থেকে যে কেউ এসে বিশ্ববিদ্যালয়ে যেন ভর্তি হতে পারে সে ব্যবস্থা থাকা উচিত।

মন্ত্রী বলন, ডিপ্লোমা পাশকরা শিক্ষার্থীরা যেন শুধুমাত্র ডুয়েটে নয় বরং সব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারে সে ব্যবস্থা থাকা উচিত।

সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ও আইইবি’র প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার মো. আবদুস সবুর, আইইবি’র ভাইস-প্রেসিডেন্ট বীর মুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিনিয়ার মো. নুরুজ্জামান। সম্মানিত আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান এবং ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. ইঞ্জিনিয়ার এম. হাবিবুর রহমান।

ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (আইইবি) এর কম্পিউটার কৌশল বিভাগের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মো. তজিম উদ্দীন আহমেদের সভাপতিত্বে সেমিনার সঞ্চালনা করেন ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (আইইবি) এর কম্পিউটারকৌশল বিভাগের সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার সঞ্জয় কুমার নাথ। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (আইইবি) এর সম্মানী সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মো. শাহাদাৎ হোসেন (শীবলু)।

বাংলাদেশ সময়: ০৯৫৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ১০, ২০২২
এমআইএইচ/এনএইচআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa