ঢাকা, সোমবার, ২ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

তথ্যপ্রযুক্তি

শুরু হলো হুয়াওয়ে কানেক্ট ২০২১

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩২৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১
শুরু হলো হুয়াওয়ে কানেক্ট ২০২১ শুরু হলো হুয়াওয়ে কানেক্ট ২০২১।

ঢাকা: সারা বিশ্বের আইসিটি শিল্পখাতের জন্য হুয়াওয়ের বার্ষিক ফ্ল্যাগশিপ আয়োজন হুয়াওয়ে কানেক্ট ২০২১ চীনে শুরু হয়েছে।

শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) অনলাইনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন হুয়াওয়ের রোটেটিং চেয়ারম্যান এরিক শ্যু।

এবারের অনুষ্ঠানে ব্যবসায়িক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় ডিজিটাল প্রযুক্তি কীভাবে ব্যবসায়িক পরিস্থিতি ও শিল্পখাত বিষয়ক দক্ষতার সঙ্গে আরও ভালোভাবে সমন্বিত হতে পারে এবং অংশীজনরা এ ইকোসিস্টেমকে শক্তিশালী করে সাফল্য অর্জনে কীভাবে আরও কার্যকর উপায়ে একসঙ্গে কাজ করতে পারে এসব বিষয়ে আলোচনা করা হবে।

অনুষ্ঠানটিতে চারটি মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হবে। পাশাপাশি পাঁচটি সামিট এবং ৬৬টি সেশন অনুষ্ঠিত হবে, যেখানে ২শ’র বেশি বক্তা অংশ নিবেন। বক্তাদের মধ্যে থাকবেন ব্যবসায়িক নেতারা, শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ এবং ইকোসিস্টেম সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিরা।

অনুষ্ঠানটি হুয়াওয়ের করপোরেট ওয়েবসাইট ও এর মিডিয়া পার্টনারদের প্ল্যাটফর্মে মোট ১১টি ভাষায় সরাসরি সম্প্রচার করা হবে। এতে অনলাইন প্রদর্শনী, প্রদর্শনী হলের রিমোট ভিজিট এবং উন্মুক্ত প্যানেল আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে। আরও থাকবে অনলাইনে অংশগ্রহণমূলক আলোচনা ও অংশগ্রহণকারীদের জন্য ওয়ান-স্টপ এক্সপেরিয়েন্স সুবিধা।

বক্তব্যে এরিক শ্যু সম্পূর্ণ কানেক্টেড ইনটেলিজেন্ট বিশ্বে প্রত্যেক ব্যক্তি, ঘর ও প্রতিষ্ঠানকে ডিজিটালাইজেশনের আওতায় আনার জন্য ইন্ডাস্ট্রিগুলোকে ডিজিটাল করে তুলতে সাহায্য করার বিষয়টি কীভাবে হুয়াওয়ের লক্ষ্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক তা নিয়ে আলোচনা করেন। অন্যদিকে হুয়াওয়ে লো-কার্বন বিকাশের জন্য কী করছে ও সামগ্রিকভাবে ইন্ডাস্ট্রি কোথায় যাচ্ছে এসব উল্লেখ করে শ্যু তার আলোচনায় এই তিনটি ক্ষেত্রে হুয়াওয়ের অগ্রগতির দিকগুলো তুলে ধরেছেন।

শ্যু বলেন, ডিজিটাল উন্নয়ন মূলত ডিজিটাল প্রযুক্তির ওপর নির্ভরশীল। ডিজিটাল প্রযুক্তিকে প্রাসঙ্গিক রাখতে আমাদের অবশ্যই ধারাবাহিকভাবে উদ্ভাবন করতে হবে এবং ভ্যালু তৈরি করতে হবে। ক্লাউড, এআই ও নেটওয়ার্ক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তিনটি ডিজিটাল প্রযুক্তি।

হুয়াওয়ে ক্লাউড সম্পর্কে শ্যু বলেন, মাত্র চার বছর আগে চালু হওয়া হুয়াওয়ের ক্লাউড সেবায় ইতোমধ্যে ২৩ লাখেরও বেশি ডেভেলপার, ১৪ হাজার কনসাল্টিং পার্টনার ও ছয় হাজার প্রযুক্তি পার্টনার যুক্ত হয়েছে এবং হুয়াওয়ে ক্লাউড মার্কেটপ্লেসে সাড়ে চার হাজারের বেশি সেবা পাওয়া যাচ্ছে। ইন্টারনেট প্রতিষ্ঠান, উদ্যোক্তা ও সরকারের জন্য তাদের প্রতিষ্ঠানগুলোকে ডিজিটাল করতে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ প্ল্যাটফর্ম হয়ে উঠেছে।

অনুষ্ঠানে শ্যু হুয়াওয়ের ক্লাউডে সেবায় থাকা এ শিল্পখাতের প্রথম ডিস্ট্রিবিউটেড ক্লাউড-নেটিভ সার্ভিস ইউসিএস উন্মোচন করেন। ইউসিএস’র মাধ্যমে ভৌগোলিক, ক্রস-ক্লাউড বা ট্রাফিক সীমাবদ্ধতার দ্বারা সীমাবদ্ধ নয় এমন ক্লাউড-নেটিভ অ্যাপ্লিকেশনগুলো ব্যবহার করার সময় সকল ইন্ডাস্ট্রিতে ডিজিটাল রূপান্তর ত্বরান্বিত করতে হুয়াওয়ে একটি ধারাবাহিক অভিজ্ঞতাসহ এন্টারপ্রাইজ প্রদান করার পরিকল্পনা করছে।

আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত অনলাইনে হুয়াওয়ে কানেক্ট অনুষ্ঠিত হবে। এ বছরের আয়োজনের মূল প্রতিপাদ্য ডাইভ ইনটু ডিজিটাল। হুয়াওয়ে ক্লাউড, এআই ও ফাইভজি’র মতো প্রযুক্তির ব্যবহারিক প্রয়োগে কাজ করছে। এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি সব ধরনের প্রতিষ্ঠানকে অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে আরও দক্ষ ও বহুমুখী করে তুলতে পারবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩২৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১
এমআইএইচ/কেএআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa