ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৬ আগস্ট ২০২০, ১৫ জিলহজ ১৪৪১

তথ্যপ্রযুক্তি

করোনা: সাংবাদিক ও দুস্থদের জন্য সদাগরের ‘পাশে আছি’

শাওন সোলায়মান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৪-২৭ ০২:৩৬:০৪ পিএম
করোনা: সাংবাদিক ও দুস্থদের জন্য সদাগরের ‘পাশে আছি’

ঢাকা: করোনা পরিস্থিতিতে দেশের সাংবাদিক এবং অসহায় মানুষদের সহায়তার জন্য হাত বাড়িয়ে দিয়েছে ইকমার্স হোলসেল মার্কেটপ্লেস সদাগর ডট কম। তারা তাদের সামাজিক দায়বদ্ধতা কার্যক্রম প্রকল্প ‘পাশে আছি’-এর মাধ্যমে দেশের গণমাধ্যম কর্মীদের জন্য ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী (পিপিই) এবং অসহায় জনগোষ্ঠীর মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করছে।

ইকমার্স প্ল্যাটফর্ম সদাগর ডট কম সূত্রে জানা যায়, দেশে করোনার আক্রমণের কারণে অঘোষিত লকডাউন শুরুর সময় থেকেই অসহায় জনগোষ্ঠীর জন্য কাজ করে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।  এর পাশাপাশি করোনার এমন পরিস্থিতিতেও বিভিন্ন গণমাধ্যমে অব্যাহতভাবে পেশাগত দায়িত্ব পালন করে আসা বেশ কজন সাংবাদিককে পিপিই সরবরাহ করে সদাগর ডট কম।

প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফ চৌধুরী বাংলানিউজকে বলেন, করোনার কারণে লকডাউন বা সাধারণ ছুটির শুরুর সময় থেকেই আমরা অসহায়,কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষদের জন্য কিছু একটা করার তাগিদ থেকে সাহায্য করে আসছি।  সাহায্যের অংশ হিসেবে প্রতিটি পরিবারকে সাত দিনের প্রয়োজন মেটায় এমন খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করে আসছি।  রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা তো বটেই এর বাইরেও আমরা উপহার সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করেছি।  ঢাকার বাইরেও কিছু এলাকায় আমাদের প্রতিনিধির মাধ্যমে উপহার সামগ্রী ও স্যানিটাইজার বিতরণ করেছি।  এছাড়াও যাদের শ্বাসকষ্ট রোগ আছে বলে আমরা জানতে পেরেছি তাদের মাঝে শ্বাসকষ্টের ওষুধও বিতরণ করেছি।  

জনসাধারণের সাহায্যে বেশ কয়েকটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সঙ্গেও যৌথভাবে কাজ করেছে সদাগর ডট কম।  আরিফ চৌধুরী বলেন, আমরা নিজেদের উদ্যোগের পাশাপাশি বেশ কয়েকটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এবং এনজিও’দের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে কাজ করেছি।  যেমন- ইসাবেলা ফাউন্ডেশন, মজার স্কুল এবং শেয়ার আউটের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করেছি আমরা।  

ছবি: বাংলানিউজ

গণমাধ্যমকর্মীদের মাঝে পিপিই বিতরণ নিয়ে আরিফ বলেন, এই সময়ে যারা একদম সামনে থেকে করোনা পরিস্থিতিতে নিজেদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করে আসছেন তাদের মধ্যে সাংবাদিক বা গণমাধ্যমকর্মীরা অন্যতম।  তাই তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে আমরা আমাদের ক্ষুদ্র সামর্থ অনুযায়ী কাজ করছি।  ঢাকা ও ঢাকার বাইরের কয়েকটি জেলার সাংবাদিকদের মধ্যে এখন পর্যন্ত ৫০টিরও বেশি উন্নতমানের ওয়াশেবল পিপিই দিয়েছি আমরা।  

আর এসব অনুদানে সদাগর ডট কমের বেশ কয়েকটি গ্রাহক প্রতিষ্ঠানও এগিয়ে এসেছে বলেও জানান আরিফ চৌধুরী।  ভবিষ্যতে কৃষকদের মধ্যে ধান উত্তোলনের স্বয়ংক্রিয় মেশিন বিতরণেরও পরিকল্পনা আছে প্রতিষ্ঠানটির।  আরিফ বলেন, আমাদের এই উদ্যোগে আমাদের অনেক গ্রাহক প্রাতিষ্ঠানিক এবং ব্যক্তিগত পর্যায়েও এগিয়ে এসেছে।  তাদের সাহায্য আমাদের আরও শক্তিশালী করেছে।  এই সময়টা কৃষিখাতের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।  ধান উত্তোলনের সময়।  কৃষকেরা যেন দ্রুত এবং অল্প পরিশ্রমে ধান কেটে ঘরে তুলতে পারে তার জন্য তাদের মাঝে আমরা এক ধরনের স্বয়ংক্রিয় যন্ত্র বিনামূল্যে দেওয়ার পরিকল্পনা করছি।  এই যন্ত্রের অনেক দাম, জানি না কতটুকু পারবো কিন্তু পরিকল্পনা রয়েছে।

করোনা পরিস্থিতিতে সদাগর এর কার্যক্রম সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে এই লিংকে

বাংলাদেশ সময়: ১৪২৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৭, ২০২০
এসএইচএস/এইচএডি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa