bangla news

বেসিস সফটএক্সপো শুরু ৬ ফেব্রুয়ারি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-২৮ ৩:১০:৪২ পিএম
সংবাদ সম্মেলনে বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীরসহ অন্যরা, ছবি: বাংলানিউজ

সংবাদ সম্মেলনে বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীরসহ অন্যরা, ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: চলতি বছরে ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) শুরু হতে যাচ্ছে বেসিস সফটএক্সপো-২০২০। টানা ১৬তম বারের মতো আয়োজিত হতে যাচ্ছে চারদিনব্যাপী তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিষয়ক দক্ষিণ এশিয়ার বড় এ প্রদর্শনী।

মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) রাজধানীর কাওরান বাজারে বেসিস কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ আয়োজনের বিষয়ে ঘোষণা দেওয়া হয়।

‘ট্রান্সফর্মিং লাইফ থ্রু ইনোভেশন’ এ স্লোগানে আয়োজিত এবারের আয়োজন উদ্বোধন করবেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর, জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ফারহানা এ রহমান, সহ-সভাপতি (প্রশাসন) শোয়েব আহমেদ মাসুদ, সহ-সভাপতি (অর্থ) ও বেসিস সফটএক্সপোর আহ্বায়ক মুশফিকুর রহমান, পরিচালক তামজিদ সিদ্দিক স্পন্দন এবং পরিচালক দিদারুল আলম সানি।

বেসিস সফটএক্সপো -২০২০ প্রসঙ্গে সংগঠনটির সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর বলেন, দেশের সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠানগুলোর সম্প্রসারণে এ এক্সপোর আয়োজন করা হয়েছে। এতে তিনশ’রও বেশি প্রতিষ্ঠান অংশ নেবে। দেশের সফটওয়্যারের নিজস্ব চাহিদা পূরণে সক্ষমতা প্রদর্শন ও আস্থা তৈরিই এ প্রদর্শনীর লক্ষ্য।

বেসিস সফটএক্সপোর আহ্বায়ক এবং বেসিসের সহ-সভাপতি (অর্থ) মুশফিকুর রহমান বলেন, প্রদর্শনী এলাকাকে ১০টি জোনে ভাগ করা হয়েছে। ইন্ডাস্ট্রি চার দশমিক শূন্য জোন এবং এক্সপেরিয়েন্স জোন বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তিখাতের সক্ষমতা তুলে ধরবে। রয়েছে ভ্যাট জোন, ডিজিটাল এডুকেশন জোন, ফিনটেক জোন, উইম্যান জোন এবং বরাবরের মতো রয়েছে সফটওয়্যার সেবা প্রদর্শনী জোন, উদ্ভাবনী মোবাইল সেবা জোন, ডিজিটাল কমার্স জোন, আইটিইএস ও বিপিও জোন। থাকবে ৩০টিরও বেশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সেমিনার, যেখানে বক্তব্য রাখবেন শতাধিক দেশি-বিদেশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, দেশি-বিদেশি ব্যবসায়ীদের জন্যে থাকছে বি-টু-বি ম্যাচমেকিং সেশন। এর মাধ্যমে ব্যবসায়ীরা নিজেদের ব্যবসার প্রসার খুব সহজেই করতে পারবেন বলে আশা আয়োজকদের।

এ বছর সুইডেন, জাপান, নেদারল্যান্ডস থেকে ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদল বিটুবি ম্যাচমেকিং সেশনে অংশ নেবেন বলে জানিয়েছে বেসিস।

পাশাপাশি অন্যখাত থেকে বেসিস সদস্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সফলভাবে বিটুবি সেশন সম্পন্ন করা প্রতিষ্ঠানের মধ্য থেকে শীর্ষ ১০টি প্রতিষ্ঠানকে ‘বেসিস টপ টেন ডিজিটাল-রেডি কোম্পানির সম্মাননা দেওয়া হবে।

দুই হাজারের বেশি শিক্ষার্থীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় আইসিটি ক্যারিয়ার ক্যাম্প। রয়েছে ৪৫টির বেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ইনোভেটিভ প্রজেক্ট শো-কেসিং, যাদের মধ্যে প্রথম তিনটি ইনোভেটিভ প্রজেক্টকে পুরস্কার দেওয়া হবে। থাকছে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় আউটসোর্সিং কনফারেন্স। দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ী নেতাদের অংশগ্রহণে সিএক্সও লিডারশিপ মিট। পাশাপাশি থাকছে কনসার্টও।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৮, ২০২০
এসএইচএস/এএটি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-01-28 15:10:42