bangla news

প্রথমবারের অভিজ্ঞতায় দ্বিতীয়বার আশাবাদী বন্ডস্টাইন

শাওন সোলায়মান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-২২ ১০:১০:২৫ এএম
.

.

হা লং, ভিয়েতনাম থেকে: ভিয়েতনামের হা লং শহরে চলছে এশিয়া প্যাসিফিক আইসিটি অ্যাওয়ার্ড (এপিকটা)-২০২৯ এর ১৯তম আসর। ভিয়েতনামসহ বাকি ১৪টি সদস্য রাষ্ট্র থেকে ২৫০টি প্রকল্প প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে এবার।

এ আসরে বাংলাদেশ থেকে ৩২টি দলের ৩৫টি প্রকল্প রয়েছে। এদের মধ্যে বন্ডস্টাইনের রয়েছে এপিকটায় এর আগেও অংশ নেওয়ার অভিজ্ঞতা। আর সেই অভিজ্ঞতা থেকেই এবার পুরস্কার জয়ের সাহস দেখছে বন্ডস্টাইন। 

বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) জাজিং এর দ্বিতীয় রাউন্ডের মধ্যে দিয়ে শেষ হয় প্রতিযোগীদের পিচিং পর্ব। এখন অপেক্ষা ফলাফল ঘোষণার। এবার বিজনেস সার্ভিস (আইসিটি অ্যান্ড সিকিউরিটি সলুশন) এবং টেকনোলজি (আইওটি) এর দুই ক্যাটাগরিতে ‘পিজি ট্র্যাকার’ প্রকল্পের নাম দিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছে বন্ডস্টাইন। 

আসরের খানিক অবসরে বাংলানিউজের সঙ্গে আলাপ হয় বন্ডস্টাইনের দুই প্রতিযোগী প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক যাফির শাফী চৌধুরী এবং নির্বাহী আবির মাহমুদ তাসিকের। নিজেদের প্রকল্প নিয়ে তারা জানান, পিজি বা পোর্টেবল জেনারেটর ট্র্যাকিং করবে এমন একটি সিস্টেম বা ব্যবস্থা তৈরি করেছে তারা। 


আবির বলেন, আমাদের দেশে প্রায় প্রতিদিন এক লাখ জেনারেটর ব্যবহার করা হয়। তবে এগুলো নিয়ন্ত্রিত এবং সঠিক উপায়ে পরিচালিত হয় না। ফলে এগুলোর থেকে সর্বোচ্চ ফলাফল আমরা পাই না। উপরন্তু জ্বালানি খরচ হয় বেশি। আমরা আইওটি বা ইন্টারনেট অন থিংস প্রযুক্তির সহায়তায় এ সিস্টেম ডেভেলপ করেছি যেখানে আপনি আপনার জেনারেটর গুলো ট্র্যাক করতে পারবেন, মনিটরিং করতে পারবেন। 

আবির আরও বলেন, আইওটি প্রযুক্তির কারণে এর পাশাপাশি জেনারেটরের বিভিন্ন তথ্য বিশ্লেষণ করা যাবে। যেমন আপনার কোন জেনারেটরটির কখন কোন ডিভাইস দরকার, কোনটি আপনাকে কতোটুকু আউটপুট দিচ্ছে, কোনটির রক্ষণাবেক্ষণ প্রয়োজন এসব জানতে পারবেন। এসব তথ্যকে বিশ্লেষণ করে কম জ্বালানিতে সম্পদের সীমিত ব্যবহারের মধ্যে দিয়ে অধিক কার্যকর ফলাফল পাওয়া যাবে। 

বন্ডস্টাইন এর আগেও একবার এপিকটায় অংশ নেওয়ার অভিজ্ঞতা রয়েছে। আর সেটিই এবার তাদের সাহস যুগিয়েছে। এমনটাই বলছেন যাফির শাফী চৌধুরী। 

তিনি বলেন, এবার যত প্রতিযোগী এসেছেন তাদের মধ্যে আমরাই মনে হয় দ্বিতীয়বার অংশ নেওয়ার অভিজ্ঞতা সম্পন্ন। এর আগে ২০১৬ সালে চাইনিজ তাইপে বা তাইওয়ান এ হওয়া এপিকটায় অংশ নিয়েছিলাম। সেবার আমাদের প্রকল্প ছিল ‘ট্র্যাক মাই ভেহিকেল’। এ প্রকল্পে আমরা ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের যানবাহন এর লাইভ ট্র্যাকিং করতে পারি। গাড়ি ও মোটর বাইক হলে সেটি নিয়ন্ত্রণ ও করা যায়। আর এ সবকিছু করা যায় ওয়েবসাইট থেকে বা হাতের স্মার্টফোন দিয়েও। সেবার মাত্র ০ দশমিক ২ পয়েন্টের জন্য পুরস্কার পাইনি আমরা। তবে এবার আসা আছে ফলাফল ভালো কিছু হবে। আমাদের এবারের পিচিং নিয়ে আমরা বেশ আশাবাদী। 

পুরস্কার না পেলেও কাজের উদ্যমে ভাটা পড়বে না বলে জানান তরুণ এ দুই আইটি প্রফেশনালস। তারা বলেন, এপিকটার পুরস্কার সত্যিই দারুণ একটা ব্যাপার। তবে এপিকটায় অংশ নেওয়ার আগে থেকেই জাতীয় পর্যায়ে আমরা দারুণ কিছু কাজ করছি। যেমন ২০১৫ সালে যখন মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা ফাঁস হওয়ার বড় ধরনের অভিযোগ এলো তার পরের বছর অর্থ্যাৎ ২০১৬ থেকে প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে সরকারের সঙ্গে কাজ করছি আমরা। আমরা একটি ‘স্মার্ট বক্স’ বানিয়েছি যার মাধ্যমে নির্দিষ্ট স্থানে, নির্দিষ্ট সময়ে এবং নির্দিষ্ট ব্যক্তিরাই এ স্মার্ট বক্স থেকে প্রশ্নপত্র সংগ্রহ করতে পারবে। এমবিবিএস, বিডিএস এবং নার্সিং কোর্সের  ভর্তির সর্বশেষ ২০১৯ পর্যন্ত সফলতার সঙ্গে আমরা এ কাজটি করছি। আমাদের প্রতিষ্ঠানে এখন প্রায় অর্ধশতাধিক ব্যক্তির কর্মসংস্থান রয়েছে। ব্যবসা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এটিকে আরও বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের। 

যাফির বলেন, আমাদের কাজের স্বীকৃতি হিসেবে দেশে-বিদেশে সম্মানজনক কিছু পুরস্কার ও রিকগনিশন পেয়েছি। যেমন এবার আইওটি ক্যাটাগরিতে বেসিস ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড পেয়েছি আমরা। ২০১৫ সিঙ্গাপুরের এশেনোল-১৭ তে বিশ্বের শীর্ষ ১০০ স্টার্টআপ এর মধ্যে বাংলাদেশ থেকে বিক্রয় ডট কমের সঙ্গে আমরাও স্থান করে নেই। তবে দুর্ভাগ্যক্রমে এবারও পুরস্কার নিয়ে দেশে ফিরতে না পারলেও অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে সামনের দিনগুলোতে আরও এগিয়ে যেতে চায় বন্ডস্টাইন। 

.
বাংলাদেশ সময়: ১০০৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ২২, ২০১৯
এসএইচএস/আরআইএস/

আরও পড়ুন>>
** বছরে ১৪ মিলিয়ন পর্যটক আসে হা লং-এ: ডং হুই হাউ​
** এপিকটায় অংশ নেবে দেশের ৩২ প্রকল্প​
** ঘণ্টা বাজিয়ে শুরু হলো এপিকটার ১৯তম আসর
**এপিকটায় শেষ হলো বাংলাদেশের দলগুলোর ইকুইপমেন্ট টেস্ট​
** প্রথম রাউন্ডে পিচ করলো দেশের ১৬টি দল​
** এপিকটায় পিচিং করছে দেশের ১৮টি প্রকল্প​
** মেধাবীদের দেশেই রাখতে চান বেসিস সভাপতি
 

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-22 10:10:25