ঢাকা, রবিবার, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৫ জুলাই ২০২১, ১৪ জিলহজ ১৪৪২

তথ্যপ্রযুক্তি

এপিকটায় শেষ হলো বাংলাদেশের দলগুলোর ইকুইপমেন্ট টেস্ট

শাওন সোলায়মান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৫১ ঘণ্টা, নভেম্বর ২০, ২০১৯
এপিকটায় শেষ হলো বাংলাদেশের দলগুলোর ইকুইপমেন্ট টেস্ট ইকুইপমেন্ট টেস্টে এপিকটায় অংশ নেওয়া বাংলাদেশের দলের সদস্যরা। ছবি: বাংলানিউজ

হা লং ভিয়েতনাম থেকে: পর্দা উঠেছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতের অস্কার হিসেবে পরিচিত এশিয়া প্যাসিফিক আইসিটি অ্যাওয়ার্ড (এপিকটা) এর ১৯তম আসর।

ভিয়েতনামের কোয়াং নিন প্রদেশের হা লং শহরে আয়োজিত এবারের আসরে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশের ৩২টি দল। আয়োজনের প্রথম দিনে অনুষ্ঠানের বিভিন্ন যন্ত্রাংশ বা ইকুইপমেন্ট এবং ডিভাইস টেস্টিং আয়োজিত হয়।

 

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) ভিয়েতনামের উইন্ডাম লিজেন্ড হা লং হোটেলে এ ইকুইপমেন্ট টেস্টিং আয়োজিত হয়। দুই দিনব্যাপী জাজিং সেশনে নিজেদের প্রকল্প উপস্থাপনে গুরুত্বপূর্ণ এ ইকুইপমেন্ট টেস্টিং সেশন।  

এ সময় প্রতিযোগীরা নিজেদের বিভিন্ন ডিভাইসের পাশাপশি আয়োজকদের দেওয়া বিভিন্ন ডিভাইস নিয়ে ডেমো প্রেজেন্টেশন দেন। নিজেদের প্রজেক্ট উপস্থাপনে ডিভাইসের সফল কার্যকারিতা পরীক্ষা করেন তারা।  

এবারের আসরে বাংলাদেশ থেকে অংশ নেওয়া দলগুলোর একটি বন্ডস্টাইন এর সদস্য আবির মাহমুদ বলেন, মূল প্রকল্প উপস্থাপনের আগে এ ধরনের ইকুইপমেন্ট টেস্টিং খুবই জরুরি। কারণ মূল প্রকল্পে কোনো যান্ত্রিক ত্রুটি হলে তার নেতিবাচক প্রভাব পড়বে ফলাফলে। আমাদের ডিভাইসের সঙ্গে তাদের সিস্টেমের এক সঙ্গে কাজ করা আবার তাদের সিস্টেমের সঙ্গে আমাদের পরিচিত হওয়ার জন্য এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
.এ বিষয়ে বাংলাদেশ দলের অন্যতম কো-অর্ডিনেটর এবং বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) প্রতিনিধি ওয়াসেক সাজ্জাদ বলেন, মূলত এ আয়োজনের মধ্যে দিয়ে প্রতিযোগীরা পুরো প্রক্রিয়ার একটি সম্যক ধারণা পেলো। তাদের ডিভাইসগুলো কীভাবে ব্যবহার করতে হবে, সেই ধাপগুলোর সঙ্গে নিজেদের পরিচয় করিয়ে নিলো। প্রস্তুতি হিসেবে এগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ।  

আরও পড়ুন>> ঘণ্টা বাজিয়ে শুরু হলো এপিকটার ১৯তম আসর

ইকুইপমেন্ট টেস্টিং এর পর বাংলাদেশ দলের সদস্যরা এক গ্রুপ ফটো সেশনে অংশ নেন। আগামী দুই দিন অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন দেশের দল ও প্রতিযোগীদের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে বাংলাদেশের তরুণরা। বিভিন্ন সময়ে দিনভর এসব আয়োজন শেষে আগামী ২২ নভেম্বর (শুক্রবার) বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে।  

এবারের বাংলাদেশ দলের নেতৃত্বে আছেন বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর। বেসিস সদস্যদের মধ্যে আরও আছেন জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ফারহানা এ রহমান, সহ-সভাপতি (প্রশাসন)  ও অ্যাপিকটার বিচারকমণ্ডলীর সদস্য শোয়েব আহমেদ মাসুদ, পরিচালক ও অ্যাপিকটার বিচারকমণ্ডলীর সদস্য দিদারুল আলম সানি, মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল, অ্যাপিকটায় বাংলাদেশের ইকোনমিক কো-অর্ডিনেটর রাশেদ কামাল।

.বাংলাদেশ সময়: ১৯৫০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৯, ২০১৯
এসএইচএস/আরআইএস/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa