bangla news

২০২১ সালে ডব্লিউসিআইটি সম্মেলন হবে বাংলাদেশে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-০৮ ৮:৫২:৪২ পিএম
‘ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অন ইনফরমেশন টেকনোলজি-২০১৯’ (ডব্লিওসিআইটি) এর মিনিস্ট্রিয়াল রাউন্ড টেবিল আলোচনা

‘ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অন ইনফরমেশন টেকনোলজি-২০১৯’ (ডব্লিওসিআইটি) এর মিনিস্ট্রিয়াল রাউন্ড টেবিল আলোচনা

ঢাকা: ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অন ইনফরমেশন টেকনোলজির (ডব্লিউসিআইটি) বিশ্ব সম্মেলন ২০২১ সালে অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশে। ডিজিটাল কানেকটিভিটি ও ডিজিটাল অর্থনৈতিতে দ্রুত ডিজিটালাইজড হওয়ায় আয়োজক দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে নির্বাচন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) আর্মেনিয়ার রাজধানী ইয়েরেভানে চলমান চলতি বছরের ডব্লিউসিআইটি সম্মেলন থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। 

শহরটির ডেমিরচায়ান কমপ্লেক্সে আয়োজিত ‘ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অন ইনফরমেশন টেকনোলজি-২০১৯’ (ডব্লিওসিআইটি) এর মিনিস্ট্রিয়াল রাউন্ড টেবিল আলোচনায় অংশ নেন প্রতিমন্ত্রী পলক।

এসময় প্রতিমন্ত্রী জানান, ডব্লিউসিআইটির মহাসচিব জেমস পয়জান্টস সম্মেলনের উদ্বোধনকালে ঢাকায় এ সম্মেলন হওয়ার ঘোষণা দেন। 

তিনি বলেন, ২০২১ সালে ডব্লিউবিআইটি এর হোস্ট কান্ট্রি হওয়ায় আমরা গর্ববোধ করছি।

পলক বলেন, বিগত ১০ বছরে বাংলাদেশ তথ্যপ্রযুক্তির প্রতিযোগিতামূলক আন্তর্জাতিক মানের দেশ হিসেবে নিজেদের জায়গা করে নিয়েছে। ইন্টারনেট অবকাঠামো, শিক্ষার হার, খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন, সবার জন্য বিদ্যুৎ ও শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়াসহ হাই-স্পিড ব্রডব্যান্ড, ইন্টারনেট সেবা, কানেক্টিভিটি, সফটওয়্যার এক্সপোর্ট, তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে ব্যবসা প্রসার ঘটানো, মোবাইল ব্যাংকিংসহ বিভিন্ন সেবা লক্ষ্যণীয় মাত্রায় বেড়েছে। 
 
মিনিস্ট্রিয়াল রাউন্ড টেবিল আলোচনায় পলক বলেন, বিশ্বায়ন প্রক্রিয়া শুরুর সঙ্গে সঙ্গে ব্যবসা বাণিজ্য ও বিনিয়োগের জন্য আন্তর্জাতিক পরিবেশ অতীতের তুলনায় অনেক বেশি প্রতিযোগিতামূলক ও প্রযুক্তিনির্ভর হয়ে উঠেছে। এ তীব্র প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে আমাদের প্রযুক্তি ও জ্ঞাননির্ভর অর্থনীতিতে রূপান্তর ছাড়া কোনো বিকল্প নেই। 

মিনিস্ট্রিয়াল সেশনে অন্যদের মধ্যে আরমেনিয়ার হাইটেক ইন্ডাস্ট্রি বিষয়ক মন্ত্রী হাকোব আরশাকায়ান, মালয়েশিয়ার পেনাং প্রদেশের পাবলিক ওয়ার্কস প্রতিমন্ত্রী মিস্টার জোহায়ের, কম্বোডিয়ার কমিউনিকেশন ডেপুটি মিনিস্টার মিস মেরিন নিকোলো, ইরানের কমিউনিকেশন মিনিস্টার ইয়াহুসিসহ বিভিন্ন দেশের মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা আলোচনায় অংশ নেন। ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিসেস অ্যালায়েন্সের মহাসচিব ডা. জেমস এইচ এসময় উপস্থিত ছিলেন। 

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৮, ২০১৯
এসএইচএস/এএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-08 20:52:42