bangla news

ঘটনাক্রমে মিলে গেলো ‘কৃষ্ণতম’ বস্তু!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-১৪ ৫:১৫:২৩ পিএম
ঝকঝকে হীরাও কৃষ্ণবর্ণ হয়ে গেছে। ছবি: সংগৃহীত

ঝকঝকে হীরাও কৃষ্ণবর্ণ হয়ে গেছে। ছবি: সংগৃহীত

একটি গবেষণা চলাকালে একদল বিজ্ঞানী তৈরি করেছেন বিশ্বের সবচেয়ে কালো বস্তু। এটি আলোর ৯৯ দশমিক ৯৯৫ শতাংশই শোষণ করে নিচ্ছে। এর আগে আবিষ্কৃত সবচেয়ে কালো বস্তু ‘ভান্টাব্ল্যাক’ আলো শোষণ করতো ৯৯ দশমিক ৯৬ শতাংশ। অর্থাৎ, নতুন কালো বস্তুটি থেকে আগের চেয়ে প্রায় ১০ গুণ কম আলো প্রতিফলিত হচ্ছে।

গত বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রুশ সংবাদমাধ্যম আরটি জানায়, নতুন আল্টা-ব্ল্যাক বস্তুটি তৈরি হয়েছে সারিবদ্ধ মাইক্রোস্কোপিক কার্বন ন্যানোটিউব (সিএনটি) থেকে। 

জানা যায়, অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলের ওপর কার্বন ন্যানোটিউব বৃদ্ধির প্রক্রিয়া পরীক্ষা করছিলেন ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) বিজ্ঞানীরা। ঘটনাক্রমে তারা দেখতে পান, অসংখ্য ন্যানোটিউব ধীরে ধীরে ফয়েলের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ছে। কিন্তু, সেখানে প্রবেশ করা আলো আর ফিরে আসছে না। একপর্যায়ে তারা দেখেন, ফয়েলটি এত বেশি কালো হয়ে গেছে, যা সামনাসামনি পুরো অদৃশ্য হয়ে যাচ্ছে। পরে জানা যায়, এটিই এযাবৎকালের সবচেয়ে কালো বস্তু।

এখনো নামহীন আল্ট্রা-ব্ল্যাক বস্তুটি নিউ ইয়র্কের একটি প্রদর্শনীতে দেখানো হচ্ছে। এটি প্রায় দুই মিলিয়ন ডলার মূল্যের ১৬ দশমিক ৭৮ ক্যারেটের একটি ঝকঝকে হীরার টুকরোকে পুরোপুরি কালো করে দিয়েছে। 

‘নতুন কালো বস্তু’ এত কালো কেন, তা এখনো জানতে না পারলেও বিষয়টি নিয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত বিজ্ঞানীরা। এ বস্তুটি মহাকাশ গবেষণায় ব্যবহৃত শক্তিশালী টেলিস্কোপ তৈরিতে ব্যবহার করা যাবে বলে বিশ্বাস তাদের।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯
একে

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-14 17:15:23