ঢাকা, রবিবার, ১০ ভাদ্র ১৪২৬, ২৫ আগস্ট ২০১৯
bangla news

বিদেশ থেকে আনা হ্যান্ডসেট নিবন্ধন করে ব্যবহার করা যাবে

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৮-০৪ ৫:৩৯:০৩ পিএম
বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন

ঢাকা: বিদেশ থেকে আনা হ্যান্ডসেট নিবন্ধন সাপেক্ষে দেশে ব্যবহার করা যাবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

একইসঙ্গে গত ১ আগস্টের (বৃহস্পতিবার) আগে কেনা বা ব্যবহৃত সব হ্যান্ডসেট ব্যবহার করা যাবে জানিয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বলছে, ওই তারিখের পর নেওয়া অবৈধ হ্যান্ডসেট ভবিষ্যতে নেটওয়ার্ক বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে। তবে কবে থেকে নেটওয়ার্ক বিচ্ছিন্ন হবে তা এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

সম্প্রতি বিটিআরসি এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, ১ আগস্ট থেকে অভ্যন্তরীণ বাজারে ক্রয়ের আগে এসএমএস পাঠিয়ে ক্রেতাদের হ্যান্ডসেটের আইএমইআই’র বৈধতা দেখে নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। অবৈধ হ্যান্ডসেট আমদানি বন্ধ করতে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়।

বিষয়টি নিয়ে অনেকেরই প্রশ্ন থেকে যায়- ১ আগস্ট থেকে বিদেশ থেকে আনা বা অন্য অনিবন্ধিত কিংবা অবৈধ হ্যান্ডসেট বন্ধ হয়ে যাবে কিনা?

এসব বিষয়ে রোববার গ্রাহকের মনে উদ্রেক হওয়া কিছু প্রশ্নের উত্তর দিয়েছে বিটিআরসি।

বিদেশ থেকে নিয়ে আসা বা গিফট পাওয়া হ্যান্ডসেট দেশে ব্যবহার করা যাবে কিনা- প্রশ্নে বিটিআরছি বলছে, ১ আগস্টের আগের সব মোবাইল হ্যান্ডসেট ভবিষ্যতে স্থাপিতব্য ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার (এনইআইআর) ব্যবস্থায় রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ পাবে এবং ব্যবহার করতে পারবে। তবে পরবর্তী সময় বিদেশ থেকে ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য আনা বা উপহার হিসেবে প্রাপ্ত হ্যান্ডসেট প্রয়োজনীয় দলিলাদি দাখিল সাপেক্ষে নির্ধারিত পদ্ধতিতে নিবন্ধনের সুযোগ পাওয়া যাবে এবং ব্যবহার করা যাবে। 

বর্তমানে ব্যবহৃত অবৈধ হ্যান্ডসেট নিবন্ধন বিষয়ে বলা হয়েছে, ১ আগস্টের আগের সব হ্যান্ডসেট ভবিষ্যতে স্থাপিতব্য এনইআইআর ব্যবস্থায় রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ পাওয়া যাবে। অপরদিকে ১ আগস্ট থেকে শুরু করে পরবর্তী সময়ে ক্রয়কৃত শুধুমাত্র হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের ব্যবস্থা থাকবে।

বিটিআরসির আইএমইআই ডাটাবেজে ২০১৮ সাল এবং পরবর্তী সময়ে আমদানিকৃত অথবা দেশে উৎপাদিত সব হ্যান্ডসেটের তথ্য সংরক্ষিত রয়েছে। অবৈধপথে আমদানিকৃত অথবা বিদেশ থেকে আনা সেটের তথ্য সংরক্ষিত নেই।

বর্তমানে ব্যবহৃত হ্যান্ডসেট বৈধ বিক্রয় কেন্দ্র থেকে কেনা হলেও আইএমইআই ডাটাবেজে তথ্য না পাওয়ার বিষয়ে বিটিআরসি বলছে, ২০১৮ সালের আগের হ্যান্ডসেটের তথ্য পাওয়া যাবে না। তবে ১ আগস্ট থেকে পরবর্তী সময়ে কেনা যেসব হ্যান্ডসেটে এই মেসেজ পাওয়া যাবে তা নিশ্চিতভাবে অবৈধ এবং পরবর্তীতে নেটওয়ার্ক বিচ্ছিন্ন করা হবে। ১ আগস্টের আগে প্রকৃত অর্থে ব্যবহৃত সব হ্যান্ডসেট ব্যবহার করা যাবে এবং তা নেটওয়ার্ক বিচ্ছিন্ন করা হবে না।

নেটওয়ার্ক থেকে কবে অবৈধ হ্যান্ডসেট বিচ্ছিন্ন করা হবে- প্রশ্নে বিটিআরসি বলছে, বিটিআরসি শিগগিরই এনইআইআর সিস্টেম স্থাপন করা হবে। এই সিস্টেমে স্থাপিত হলে অবৈধ সব মোবাইল হ্যান্ডসেট নেটওয়ার্ক বিচ্ছিন্ন করা সম্ভব হবে। ১ আগস্ট থেকে শুরু করে পরবর্তী সময়ে ক্রয়কৃত যে সব হ্যান্ডসেটের আইএমইআই ডাটাবেজে পাওয়া যাবে না সেই সব হ্যান্ডসেট নকল হিসেবে বিবেচিত হবে।

পুরনো অথবা ব্যবহৃত হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে কিনা- প্রশ্নে বিটিআরসি বলছে, বর্তমানে শুধু ২০১৮ সাল এবং পরবর্তী সময়ে আমদানিকৃত অথবা উৎপদিত হ্যান্ডসেটের তথ্য সংরক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ফলে বর্তমান ব্যবস্থায় নিবন্ধনের কোনো প্রয়োজনীয়তা নেই।

এনইআইআর স্থাপিত হলে ১ আগস্টের আগের সব এবং তৎপরবর্তী বৈধ সব হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের প্রক্রিয়া শুরু হবে। এজন্য ১ আগস্ট থেকে শুরু করে পরবর্তী সময়ে কেনা বা সংগ্রহ করা হ্যান্ডসেটের  প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিবন্ধনের জন্য সংরক্ষণ করতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩৭ ঘণ্টা, আগস্ট ০৪, ২০১৯
এমআইএইচ/জেডএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   মোবাইল ফোন বিটিআরসি
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-08-04 17:39:03