ঢাকা, রবিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

তথ্যপ্রযুক্তি

ঈদমেলা

শেষ হলো ঈদ মোবাইল মেলা

সাব্বিন হাসান | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬২০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২, ২০১০
শেষ হলো ঈদ মোবাইল মেলা

গত বৃহস্পতিবার ঢাকার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শুরু হয় তিন দিনব্যাপী মোবাইল মেলা। এরই মধ্যে মোবাইল মেলার দু’দিন পেরিয়ে গেছে।

উল্লেখ্য, গতকাল শুক্রবার সরকারি ছুটির দিন আর ঈদ মৌসুম হওয়ায় মোবাইল মেলায় বাড়তি দর্শক সমাগম হয়।

এরই মধ্যে মোবাইল মেলায় প্রচুর মোবাইল বিক্রি হয়েছে বলে জানা গেছে। এ মোবাইল মেলায় ল্যাপটপের সঙ্গে প্যাকেজ অফারে বিক্রি করা হচ্ছে ইউএসবি ইন্টারনেট মডেম। শনিবার রাত ৮টায় মেলা শেষ হওয়ার কথা থাকলেও তা দর্শক সমাগমের উপর ভিত্তি করে বাড়ানো হতে পারে।

আয়োজক সূত্র জানিয়েছে, শনিবার মেলার শেষ দিন হওয়ায় তাৎক্ষণিক মূল্যছাড় আরও খানিকটা কমিয়ে আনা হতে পারে। এখন ঈদ উৎসবে পোষাকের পাশাপাশি মোবাইল দেওয়ার উপহার সংস্কৃতির অংশ হয়ে উঠেছে। সে উদ্দেশ্যকে সামনে রেখেই ঈদের আগে এ ধরনের মেলার আয়োজন করা  হয়েছে।

সম্প্রতি দেশীয় মোবাইল সংস্কৃতিতে জনপ্রিয় হয়ে উঠা মাইক্রোম্যাক্স, সিমফোনি এবং ম্যাক্সিমাস ব্র্যান্ডের সেটগুলো ভোক্তা মহলে বেশ জনিপ্রয় হয়ে উঠেছে। মধ্যবিত্তের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে এবং আধুনিক ডিজাইন সমৃদ্ধ হওয়ায় এসব ব্র্যান্ডের সেটগুলোর বাজার কার্তি বেড়েছে। এ মুহূর্তে দেশে ডুয়াল সিমযুক্ত মোবাইল ফোনগুলোর চাহিদা বেড়েছে অনেকাংশে।

এবারের মেলায় হুয়াই দেশে অ্যান্ড্রুয়েড অপারেটিং সিস্টেমযুক্ত মোবাইল ফোন প্রদর্শন করেছে। অচিরেই এ সেটগুলোর বাণিজ্যিক বিপণন শুরু হবে। মেলায় জেডটিই ব্র্যান্ড তাদের আসন্ন মডেম এবং সেটগুলো দর্শকদের সামনে তুলে ধরেছে।

ইনটেক্স নামে একটি ভারতভিত্তিক মোবাইল ব্র্যান্ড অচিরেই দেশের বাজারে প্রবেশ করতে যাচ্ছে। এ প্রদর্শনীতে তারাও অংশ নিয়েছে। সিরাজ টেকনোলজি দেশে ইনটেক্স ব্র্যান্ডের বাজার সম্প্রসারণে কাজ করবে। সিরাজ টেকনোলজির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ সিরাজুল ইসলাম জানান, মধ্যবিত্তের ক্রয় ক্ষমতার নাগালে আধুনিক প্রযুক্তি সুবিধাযুক্ত মোবাইল ফোন পৌঁছে দিতে তারা কাজ শুরু করেছে। আগামী ঈদুল আজহার আগেই দেশে প্রচলিত মোবাইল অপারেটদের সঙ্গে প্যাকেজ আকারে মোবাইল বাজারজাত করার পরিকল্পনা তাদের আছে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় এ মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন সিটিসেল প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং সাউথ এশিয়া মোবাইল ফোরামের সভাপতি মেহবুব চৌধুরি। উদ্বোধনী বক্তব্যে তিনি বলেন, ঢাকায় আসা নতুন ব্র্যান্ডের মোবাইল সেটগুলো সারাদেশে ছড়িয়ে দিতেই সাউথ এশিয়া মোবাইল ফোরাম এ ধরনের উদ্যোগ নিয়ে থাকে।

ঈদকে সামনে রেখেই মোবাইল মেলার এ আয়োজন। দেশে নতুন আসা ব্র্যান্ড এবং মোবাইল ফোনের মডেল নিয়েই এ সাজানো হয়েছে এ মেলা। প্রদর্শনী মূল উদ্দেশ্য হলেও সিমফোনি, মাইক্রোমাক্স এবং স্প্রিন্ট উদ্বোধনের পর পরই মোবাইল বিক্রি করতে শুরু করে। উদ্বোধনের ১ ঘণ্টার মধ্যেই ১৫টি সেট বিক্রি হয়ে যায় তাৎক্ষণিক খরব পাওয়া যায়।

সিটিসেল তাদের সুসজ্জিত প্যাভেলিয়নে ইউএসবি ইন্টারনেট মডেমের সঙ্গে তিনটি বান্ডেল প্যাকেজ অফার করছে। উল্লেখ্য, মডেমসহ তিন মাসের সাবস্ক্রিপশন ফি ৪ হাজার ৯০০ টাকা, ছয় মাসের ৫ হাজার ৯০০ টাকা এবং এক বছরের জন্য সর্বমোট ৭ হাজার ৫৯৫ টাকা।

এ মোবাইল মেলায় অংশগ্রহণকারী ব্র্যান্ডগুলো হচ্ছে সিটিসেল আল্ট্রা জুম, হুয়াই, মাইক্রোম্যাক্স, সিমফোনি, ইনটেক্স, স্প্রিন্ট, হায়ার, ম্যাক্সিমাস, জেটিই।

দেশে নতুন এমন সব মোবাইল ব্র্র্যান্ড আর মডেল ক্রেতা এবং আগ্রহীদের মাঝে উপস্থাপন করতে এ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয় বলে সূত্র জানিয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন মডেলের মোবাইল ফোন ক্রয়ে থাকছে বিশেষ মূল্যছাড়সহ তাৎক্ষণিক অফার। প্রবেশ টিকেটে থাকছে আকর্ষণীয় সব পুরস্কারের র‌্যাফল ড্র।

মোবাইলভিত্তিক এ প্রদর্শনীর মূল আয়োজক সাউথ এশিয়া মোবাইল ফোরাম। সহকারী আয়োজক বাংলাদেশ মোবাইল ফোন ইম্পোটার্স অ্যাসোসিয়েশন। এ প্রদর্শনীর প্রধান পৃষ্ঠপোষক সিটিসেল। সিলভার স্পন্সর মাইক্রোম্যাক্স, গোল্ড স্পন্সর জেডটিই এবং এক্সিবিশন স্পন্সর হুয়াই।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ১৫৪৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৪, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa