ঢাকা, শুক্রবার, ৭ আষাঢ় ১৪২৬, ২১ জুন ২০১৯
bangla news

জাপান আইটি উইকে বাংলাদেশ 

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-০৮ ৪:৩৬:০৫ পিএম
রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা

রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা

ঢাকা: জাপান আইটি উইকে অংশ নিয়ে বাংলাদেশের আইটি খাতে জাপানি ব্যবসায়ীদের অধিকতর বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা।

বাংলাদেশের ২৪টি আইটি কোম্পানি বুধবার (৮ মে) থেকে শুরু হওয়া এশিয়ার বৃহত্তম তথ্যপ্রযুক্তি মেলা ‘জাপান আইটি উইক’ এ অংশগ্রহণ করছে। মেলা চলবে ১০ মে পর্যন্ত। 

টোকিওর বাংলাদেশ দূতাবাস জানায়, বুধবার সকালে জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা মেলায় বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নের বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন। তিনি দেশ থেকে আগত আইটি উদ্যোক্তাদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন। তিনি তাদের যেকোনো প্রয়োজনে দূতাবাসের সর্বাত্মক সহযোগিতার নিশ্চয়তা দেন। 

পরে মেলার ভেন্যু টোকিও বিগ সাইটে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সম্ভাবনা নিয়ে একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক জাপানি আইটি ব্যবসায়ী প্রতিনিধি অংশ নেন। 

জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য দেন। রাষ্ট্রদূত বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি খাত বাংলাদেশের সামগ্রিক উন্নয়নকে তরান্বিত করতে তথা সরকারের ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ লক্ষ্য অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। এজন্য বাংলাদেশ সরকার এই খাতের উন্নয়নে নানাবিধ প্রণোদনা দিচ্ছে। 

তিনি আরো বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ২ মিলিয়ন লোকের কর্মসংস্থান ও ৫ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি নিশ্চিতকরণের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে যা মোট জিডিপির ৫ শতাংশ অবদান রাখবে। 

তিনি আশাপ্রকাশ করেন সার্বিক এই উদ্যোগ দু’দেশের আইটি ব্যবসায়ীদের মধ্যে ব্যবসার নবদিগন্ত উন্মোচিত করবে। রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের আইটি খাতে জাপানি ব্যবসায়ীদের অধিকতর বিনিয়োগের আহ্বান জানান। 

সেমিনারে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সচিব হোসনে আরা বেগম, বেসিসের সাবেক সভাপতি মাহাবুব জামান ও বাংলাদেশ-জাপান আইটি ইনকরপোরেশনের ইয়াশুহিরো আকাশি। 

সেমিনারটি যৌথভাবে আয়োজন করে টোকিওর বাংলাদেশ দূতাবাস, ঢাকার আইসিটি বিভাগ, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল ও বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিস (বেসিস)। সেমিনারে সহযোগিতা করে জাইকা, জেট্রো, ইউনিডো, জাপানের ইনফরমেশন-টেকনোলজি প্রমোশন এজেন্সি, কম্পিউটার সফটওয়্যার অ্যাসোসিয়েশন অব জাপানসহ অন্য সহযোগী সংগঠন। 

এছাড়া বাংলাদেশ দূতাবাস, টোকিওর উদ্যোগে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে জাপানি বিনিয়োগ বৃদ্ধি, ব্যবসা প্রসার ও দু’দেশের ব্যবসায়ীদের মধ্যে সুসম্পর্ক গড়ে তোলার লক্ষ্য নিয়ে মঙ্গলবার (৭ মে ) টোকিওর ফুজিতসু রিসার্চ ইনস্টিটিউটে দ্বিতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হয়েছে জাপান–বাংলাদেশ আইটি বিটুবি সভা। দু’দেশের আইটি ব্যবসায়ীদের প্রথম সভাটি হয়েছিল ২০১৫ সালে। এবারের সভায় বাংলাদেশি ২০টি ও জাপানিজ ২৪টি কোম্পানি ব্যবসা স্থাপন সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেছেন। 

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩১ ঘণ্টা, মে ০৮, ২০১৯
এএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-05-08 16:36:05