ঢাকা, রবিবার, ৯ মাঘ ১৪২৮, ২৩ জানুয়ারি ২০২২, ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

তথ্যপ্রযুক্তি

বিশ্বে এখন ৫০০ কোটি মোবাইল ফোন ব্যবহারকারী

সাব্বিন হাসান | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৫১১ ঘণ্টা, জুলাই ১০, ২০১০
বিশ্বে এখন ৫০০ কোটি মোবাইল ফোন ব্যবহারকারী

সম্প্রতি বিশ্ব বাজারে সর্বাধিক বিক্রিত পণ্যের তালিকার শীর্ষে আছে মোবাইল ফোন। প্রকাশিত পরিসংখ্যানও সে কথাই বলছে।

এ মুহূর্তে বিশ্বে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৫০০ কোটি ছাড়িয়েছে বলে ওয়্যারলেস ইন্টেলিজেন্স সূত্র নিশ্চিত করেছে।

উল্লেখ্য, গত ১৮ মাসের ব্যবধানে বিশ্বে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১০০ কোটি বেড়েছে। মোবাইল ফোন বিশ্লেষক বেন উড জানান, এ মুহূর্তে বিশ্বের সর্বাধিক পণ্য বিক্রিতে মোবাইল ফোন এর অবস্থান শীর্ষে। ১৯৮৭ সালে যুক্তরাজ্যে বাণিজ্যিকভাবে প্রথম মোবাইল ফোন উন্মোচিত হয়। সে সময় মোবাইল ফোন উৎপাদনের প্রাথমিক লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় ১০ হাজার।

এ মুহূর্তে শিশু, কিশোর এবং বয়স্কদের কাছে মোবাইল ফোন সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। সঙ্গে সর্বোচ্চ ব্যবহৃত পণ্যেও। বর্তমানে যুক্তরাজ্যে প্রতিবছর ৩ কোটি মোবাইল ফোন বিক্রি হয়। জরিপে উঠে আসে. ২০০৮ সাল নাগাদ বিশ্বে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা ছিল ৪০০ কোটি।

অন্যদিকে গবেষণা প্রতিষ্ঠান ওয়্যারলেস ইন্টেলিজেন্স সূত্র জানিয়েছে, আগামী ২০১২ সাল নাগাদ বিশ্বে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৬০০ কোটি ছাড়িয়ে যাবে। উল্লেখ্য, জুন ২০১০ সাল পর্যন্ত এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের মধ্যে শুধু ভারত এবং চীনেই বিশ্বের মোট ৪৭ ভাগ মোবাইল ফোন ব্যবহারকারী আছে বলে সূত্র নিশ্চিত করেছে।

এ প্রসঙ্গে বিশ্লেষক বেন উড জানান, ৫০০ কোটি মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর অর্থ হচ্ছে তা বিশ্বের মোট ব্যক্তিগত কমপিউটার ব্যবহারকারীর তুলনায় প্রায় তিন গুণ বেশি। সম্পর্ক রক্ষায় টিনএজ মেয়েদের কাছে কিংবা গ্রামের কৃষকের কাছে ফসলের তাৎক্ষণিক বাজার মূল্য জানতে মোবাইল ফোন এর বিকল্প আজ খুঁজে পাওয়া কঠিন। মোবাইল ফোন যেন হয়ে উঠেছে সমাজের অবিচ্ছেদ্য অংশ।

বিশ্লেষক বেন উড আরও উল্লেখ করেন, ১৯৯৪ সাল থেকে এ পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী ১ হাজার কোটি মোবাইল ফোন বিক্রি হয়। যার মধ্যে বিশ্বের সর্ববৃহৎ মোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নকিয়া একাই বিক্রি করে ৩৪০ কোটি মোবাইল ফোন।
                  
বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ২০২০ ঘণ্টা, জুলাই ৯, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa