ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

ভারত

২০২১ সালের প্রথমার্ধে ভারতে ২৫ কোটি মানুষ ভ্যাকসিন পেতে পারেন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৪৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ৪, ২০২০
২০২১ সালের প্রথমার্ধে ভারতে ২৫ কোটি মানুষ ভ্যাকসিন পেতে পারেন প্রতীকী ছবি

কলকাতা: ভারতে করোনা ভাইরাসের এই সংকটে ভ্যাকসিন নিয়ে এক আশা জাগানিয়া তথ্য দিয়েছেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন। রোববার (০৪ অক্টোবর) স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে তিনি জানিয়েছেন, ২০২১ সালের জুলাইয়ের মধ্যে দেশের প্রায় ২৫ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়ার কথা ভাবছে কেন্দ্রীয় সরকার।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী এও জানিয়েছেন, রাজ্যগুলোর জন্য একটি তালিকা তৈরি করছে সরকার। চলতি বছরের অক্টোবর শেষের আগে সেই তালিকায় রাজ্যগুলোর জনসংখ্যার একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশকে ভ্যাকসিনের জন্য অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। দ্রুত ভ্যাকসিনের জন্য উচ্চপর্যায়ের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ দল কাজ করে চলেছে। এই উচ্চপর্যায়ের কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে রয়েছেন নীতি আয়োগের সদস্য ডা. ভিকে পাল। তার তত্ত্বাবধানেই পুরো প্রক্রিয়া চলছে।

তিনি বলেন, সবার আগে ভ্যাকসিনের জন্য অগ্রাধিকার দেওয়া হবে স্বাস্থ্যকর্মীসহ করোনা যোদ্ধাদের। অর্থাৎ সেই তালিকায় অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে প্রথমদিকের গ্রহীতাদের তালিকা আছে চিকিৎসক, নার্স, প্যারামেডিক্যাল কর্মী, সাফাই কর্মী, নিরাপত্তা কর্মী এবং পুলিশ।

চলতি মাসেই এই তালিকা তৈরির কাজ শেষ করে ফেলা হবে। একইসঙ্গে সরকার কোভিড প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর ওপরেও নজর রাখছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন।

এদিকে, ভারতে গত দু’দিনের পর সামান্য স্বস্তিতে করোনা ভাইরাস রোগী শনাক্ত। আক্রান্ত তুলনায় বেড়েছে সুস্থতার হার। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুসারে গত এক দিনে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭৫ হাজার ৮২৯ জন। তবে সুস্থ হয়েছেন ৮২ হাজার ২৬০ জন। রোববার দেশটিতে সুস্থতার হার বেড়ে ৮৪ দশমিক ১৩ শতাংশ।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৪, ২০২০
ভিএস/টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa