ঢাকা, রবিবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৬ মে ২০২৪, ১৭ জিলকদ ১৪৪৫

ভারত

বিএসএফের গাড়ি করে টাকা আনছে বিজেপি: মমতা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০০ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৫, ২০২৪
বিএসএফের গাড়ি করে টাকা আনছে বিজেপি: মমতা

কলকাতা: ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গাড়ি করে বিজেপি টাকা আনছে বলে দাবি করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  

মঙ্গলবার (১৫ এপ্রিল) কোচবিহার আসন থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, বিএসএফ, সিআইএসএফ ও প্লেনে করে টাকার লেনদেন করছে বিজেপি।

পাশাপাশি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এও দাবি করেছেন, পুলিশ কোনোদিন সাহস দেখায়নি তাদের তল্লাশি চালানোর। এমনকি তাদের চ্যালেঞ্জ পর্যন্ত করেনি।

আদালতের নির্দেশে ভারতের তদন্তকারী সংস্থাগুলো বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালালেও মমতার অভিযোগ, কেন্দ্রীয় ক্ষমতাসীন দল বিজেপির নির্দেশে তদন্তকারী সংস্থাগুলো তল্লাশির নামে হেনস্তা করছে। এদিন এ বিষয়ে মমতা বলেছেন, ওরা সবার দুয়ারে সিবিআই পাঠিয়ে দিচ্ছে, ইডি পাঠিয়ে দিচ্ছে, ইনকাম ট্যাক্স পাঠিয়ে দিচ্ছে, এনআইএ পাঠিয়ে দিচ্ছে। অভিষেকের একটা মিটিংয়ে যাওয়ার কথা ছিল। তার জন্য হেলিকপ্টার নেওয়া হয়েছিল। সেখানেও ইনকাম ট্যাক্স পাঠিয়ে দিয়েছে। হেলিকপ্টারে করে নাকি সে সোনা আর টাকা পাচার করছে? ওসব আমরা করি না, বিজেপিরা করে। ওরা বিএসএফের মাধ্যমে গাড়ি করে টাকা আনছে। আমরা এসব করি না, আমরা একটা সিস্টেমে চলি।

তৃণমূল প্রধান এদিনও ভারতের নাগরিকত্ব সংশোধিত আইন নিয়ে সরব হয়েছিলেন। এদিনও মমতা বলেছেন, সিএএ হলো মাছের মাথা আর এনআরসি হলো লেজ। আর মাঝখানে পেটিটা হচ্ছে ইউনিফর্ম সিভিল কোড অর্থাৎ অভিন্ন দেওয়ান বিধি। আমরা এটা মানবো না। তাই বাংলাদেশ থেকে যারা এসেছেন, এখানে এসে ভারতের নাগরিক হয়েছেন, স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন, তারা ভয় পাবেন না। সিএএ ফরম ফিলাপ করবেন না। আপনারা সবাই নাগরিক।

মূলত সোমবার হলদিয়ায় কর্মসূচির জন্য গতকাল তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় হেলিকপ্টার ভাড়া নিয়েছিলেন। কিন্তু দুপুরে ‘ট্রায়াল’ শুরু হওয়ার আগে সেখান ইনকাম ট্যাক্স হানা নিয়ে শোরগোল পড়েছিল। এ নিয়ে সরব হন মমতা।

তবে শুধু অভিষেক নয়, সোমবার কেরলার ওয়েনাড় কংগ্রেস প্রার্থী রাহুল গান্ধীর হেলিকপ্টারে তল্লাশি চলে। জানা যায়, কংগ্রেস সংসদ সদস্যের হেলিকপ্টারে আয়কর তল্লাশি নয়, হানা দিয়েছে নির্বাচন কমিশনের ‘ফ্লাইং স্কোয়াড’। এ নিয়ে কংগ্রেস বলেছে, নির্বাচন কমিশন সবার তল্লাশি চালাতে পারে। এটা নিয়মবহির্ভূত কাজ নয়। কিন্তু শুধু বিরোধীদের কেন, বিজেপি নেতাদের তল্লাশি করা হোক।

আগামী ১৯ এপ্রিল ভারতে হতে চলেছে লোকসভা নির্বাচনের প্রথম ধাপের ভোট। দেশটির বিভিন্ন রাজ্যের পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার, জলপাইগুড়ি ও আলিপুরদুয়ার আসনে ভোটগ্রহণ হবে। আর সেই ভোটের ভারতে মমতার মুখে উঠে এলো বিএসএফ প্রসঙ্গ।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৫, ২০২৪
ভিএস/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।