ঢাকা, শুক্রবার, ২০ মাঘ ১৪২৯, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১১ রজব ১৪৪৪

আগরতলা

ত্রিপুরায় নানা আয়োজনে রবীন্দ্রজয়ন্তী উদযাপন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪২ ঘণ্টা, মে ১০, ২০২২
ত্রিপুরায় নানা আয়োজনে রবীন্দ্রজয়ন্তী উদযাপন

আগরতলা, (ত্রিপুরা): ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলায় নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে উদযাপিক হয়েছে রবীন্দ্র জয়ন্তী। ভারতীয় বাংলা ক্যালেন্ডার অনুসারে গত সোমবার (৯ মে) ছিল ২৫শে বৈশাখ।

এদিন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মতিথি। বিভিন্ন প্রান্তের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এদিন ত্রিপুরা রাজ্যজুড়ে উদযাপিত হয় বিশ্বকবির ১৬১তম জন্মবার্ষিকী।

জানা গেছে, ত্রিপুরা সরকার তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের উদ্যোগে আগরতলা রবীন্দ্র কাননে কবি প্রণাম অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে যোগ দেন তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী, আগরতলা পৌর নিগমের ডেপুটি মেয়র মনিকা দাস দত্ত, তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের সচিব ড. পিকে গোয়েল, সমাজসেবী সুব্রত চক্রবর্তী, সন্তুষ সাহাসহ শিল্প সংস্কৃতি জগতের গুণী ব্যক্তিত্বরা।  

অনুষ্ঠানের শুরুতে রবীন্দ্র কাননে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের মূর্তিতে পুষ্পার্ঘ দিয়ে শ্রদ্ধা জানান অতিথিরা। এরপর শিল্পীরা রবীন্দ্র সংগীত, কবিতা আবৃত্তি ও নাচ পরিবেশন করেন।

অনুষ্ঠানে নিজ বক্তব্যে করোনা ভাইরাস মহামারির পর এ বছর ত্রিপুরাসহ বিশ্বের যেখানে বাঙালি সংস্কৃতি রয়েছে; সেখানেই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিন ধুমধামের সঙ্গে উদযাপিত হচ্ছে। ২৫শে বৈশাখ কবিগুরুর জন্মদিন উপলক্ষে সারা দিনব্যাপী বিভিন্ন জায়গায় অনুষ্ঠান হচ্ছে। এসব অনুষ্ঠানে কচিকাঁচা থেকে নানা বয়সী শিল্পীরা অংশ নিয়ে তাদের প্রতিভা তুলে ধরছেন। রাজ্য সরকার চায় রবীন্দ্র চিন্তাধারা ও প্রতিভা আরও বিকশিত হোক।  

ত্রিপুরার সঙ্গের রবীন্দ্র নাথ ঠাকুরের গভীর সম্পর্ক ছিল উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, কবি চাইতেন বাঙালি সংস্কৃতিকে যেন বিশ্বের প্রথম সারিতে নিয়ে আসা যায়। এজন্য তিনি কবিতা-গানের মাধ্যমে লড়াই করেছেন। তিনি এমন এক মহাপুরুষ যিনি বাঙালি জাতিকে নতুন উচ্চতায় পৌঁছে দিয়েছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪২ ঘণ্টা, মে ১০, ২০২২
এসসিএন/এমজে/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa