ঢাকা, বুধবার, ২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৮ মহররম ১৪৪৪

আগরতলা

বড়দিন উদযাপনের জন্য প্রস্তুত গোটা ত্রিপুরা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৪২৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৭
বড়দিন উদযাপনের জন্য প্রস্তুত গোটা ত্রিপুরা বড়দিনকে কেন্দ্র করে বসেছে অস্থায়ী বাজার। ছবি: বাংলানিউজ

আগরতলা: রাত পোহালেই খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম উৎসব বড়দিন। খ্রিস্টান ধর্মের অন্যতম প্রধান গ্রন্থ বাইবেল অনুসারে ২৫ ডিসেম্বর পৃথিবীতে যীশুখ্রিস্টের আবির্ভাব ঘটেছিলো। তাই বিশ্বজুড়ে মহাধুমধামের সঙ্গে এদিনটি উদযাপিত হয়। ত্রিপুরা রাজ্যও এর বাইরে নয়।

প্রতিবারের মতো এবারও ত্রিপুরা রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় বড়দিন উদযাপনে ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে।

আগরতলার আখাউড়া রোডের আরএমএস চৌমুহনী এলাকায় বড়দিনকে কেন্দ্র করে বসেছে অস্থায়ী বাজার।

এ দোকান গুলোতে রয়েছে বিভিন্ন আকারের খ্রিস্টমাস ট্রি, স্টার, সান্তাক্লজের টুপি, মুখোশ, ঘণ্টা, খ্রিস্টমাসের বিভিন্ন ধরনের উপহার সামগ্রী, সান্তাক্লজের নানা আকারের পুতুল, কলমসহ নানা আকারের, স্বাদের ও নানা দামের কেক।

শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় এ অস্থায়ী বাজারে গিয়ে দেখা গেলো উপচেপড়া ভিড়। সবাই বড়দিন উদযাপনের জন্য নানা সামগ্রী কিনতে ব্যস্ত । বড়দিনকে কেন্দ্র করে বসেছে অস্থায়ী বাজার।  ছবি: বাংলানিউজএদিকে রাজধানী আগরতলার আরএমএস চৌমুহনী এলাকার বিখ্যাত অপরূপা বেকারি প্রতিবছরের মতো এবারও পাঁচটি ধাপের একটি বিশাল আকারের কেক বানিয়েছে।

বেকারির মালিক রাহুল পাল বাংলানিউজকে জানান, প্রতিবার বড়দিনে তারা বড় আকারের স্পেশাল কেক তৈরি করেন। গত ৩০ বছর ধরে তারা বড় আকারের কেক তৈরি করে আসছেন। এটি দাম ৪০হাজার রুপি।

তিনি আরো জানান, তিনজন কারিগর তিনদিনে এ কেকটি তৈরি করেছেন। তবে ওজনের ভিত্তিতে তৈরি হয়নি বলেও জানান।

হায়দ্রাবাদ শহর থেকে আগত ডা. সন্তুষ নাইডু বাংলানিউজকে জানান, তিনি বড়দিন উপলক্ষ্যে বিভিন্ন সামগ্রী এ বাজার থেকে কিনেছেন। আগরতলাসহ ত্রিপুরা এমন একটি জায়গা যেখানে খ্রিস্টধর্মের লোকের পাশাপাশি হিন্দু, বৌদ্ধ, মুসলিমসহ অন্যান্য ধর্মের মানুষও খ্রিস্টমাস উৎসবে মতে উঠেন ও ভরপুর আনন্দ করেন। বড়দিনকে কেন্দ্র করে বড় আকারের কেক।  ছবি: বাংলানিউজতিনি আরও জানান, বাজারে দেখা গেলো ছোট ছেলে-মেয়েসহ নানা বয়সী মানুষদের। তাদের কেউ কেউ বাজারে হাজির সান্তাক্লজেল সঙ্গে দাঁড়িয়ে সেলফি তোলেন, সান্তার হাত থেকে উপহার নেন। ছোটদের অনেকেই জানালো বড়দিনে সবাই মিলে বাড়িতে হৈ-হুল্লুড়ের সঙ্গে কেক কাটাসহ আনন্দে মেতে উঠেন।

বাংলাদেশ সময়: ১০২৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৭
এসসিএন/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa