ঢাকা, শুক্রবার, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৯ শাবান ১৪৪৫

পর্যটন

রোয়াংছড়িতে থাকছে না ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

ডিষ্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০২৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২৩
রোয়াংছড়িতে থাকছে না ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

বান্দরবান: বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলায় পর্যটকদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করেছে জেলা প্রশাসন। তবে রুমা উপজেলায় এখনো ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

 

শুক্রবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজির সই করা এক গণবিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যায়, পর্যটকদের নিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনা করে বান্দরবান পার্বত্য জেলার রোয়াংছড়ি উপজেলার স্থানীয় ও বিদেশি পর্যটকদের ভ্রমণ সংক্রান্ত নিষেধাজ্ঞা বাতিল করা হলো, এছাড়া বান্দরবান পার্বত্য জেলার ৭টি উপজেলার মধ্যে শুধুমাত্র রুমা উপজেলা ছাড়া অন্যান্য উপজেলায় পূর্বের মতো পর্যটকরা ভ্রমণ করতে জনস্বার্থে গণবিজ্ঞপ্তিটি জারি করা হয়েছে।

এদিকে দীর্ঘদিন পরে বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলা পর্যটকদের জন্য উন্মুক্ত করায় খুশি পর্যটন ব্যবসায়ীরা। বান্দরবানের জিপ মাইক্রোকার মালিক সমিতির লাইন পরিচালক মো.কামাল হোসেন বলেন, বান্দরবানে প্রতিদিন অসংখ্য পর্যটকের সমাগম হয় আর সবগুলো উপজেলায় পর্যটকরা ভ্রমণ করতে পারলে আমাদের প্রতিটি গাড়ি চালক ও তাদের পরিবার স্বাচ্ছন্দে জীবন যাপন করতে পারবে।

বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি বলেন, বান্দরবানের ৭ উপজেলার মধ্যে শুধু রুমা উপজেলায় নিরাপত্তার কারণে আমরা পর্যটকদের সাময়িকভাবে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছি, তবে অন্য ৬ উপজেলাতে (বান্দরবান সদর, রোয়াংছড়ি, থানচি, আলীকদম, লামা, নাইক্ষ্যংছড়ি) পর্যটকরা অনায়াসে ভ্রমণ করতে পারবে।  

তিনি আরও বলেন, সর্বশেষ ২০২২ সালের ১১ ডিসেম্বর পর্যটকদের বান্দরবানের রুমা ও রোয়াংছড়ি ভ্রমণে অনির্দিষ্টকালের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল প্রশাসন, তবে এখন থেকে পর্যটকরা রোয়াংছড়ি উপজেলায় ভ্রমণ করতে পারবে।

প্রসঙ্গত: সম্প্রতি বান্দরবানের দুর্গম এলাকাগুলোতে সন্ত্রাসীদের আনাগোনা বৃদ্ধি পাওয়ায় পর্যটকদের সার্বিক নিরাপত্তায় ২০২২ সালের অক্টোবর মাস থেকে সন্ত্রাসীদের নির্মূলে অভিযান শুরু করে যৌথবাহিনী। তাই পর্যটকদের সাবির্ক নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে বান্দরবানের কয়েকটি উপজেলাতে পর্যটকদের ভ্রমণে কয়েক দফা নিষেধাজ্ঞা জারি করে জেলা প্রশাসন।

বাংলাদেশ সময়: ১০২৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২৩
এসএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।