ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ কার্তিক ১৪২৮, ২৯ অক্টোবর ২০২১, ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

খেলা

খেলায় অনুশীলনের প্রতিফলন দেখতে চান মাশরাফি

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৩৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১০
খেলায় অনুশীলনের প্রতিফলন দেখতে চান মাশরাফি

ঢাকা: এক মাসের অনুশীলনে অনেক কিছুই শিখেছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। নিখুঁত ব্যাটিং, বোলিং ও ফিল্ডিংয়ের কৌশল রপ্ত করেছেন।

শিক্ষাটা কাজে লাগানোই এখন মূখ্য উদ্দেশ্য। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা আশা করছেন অনুশীলনের প্রতিফলন দেখা যাবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে।

জেমি সিডন্সের নেতৃত্বে একদল কোচ অকান্ত পরিশ্রম করছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের নিয়ে। অধিনায়ক মাশরাফির দৃষ্টিতে দারুণ কাজ হয়েছে। বলেন,“খুব ভালো প্র্যাক্টিস হচ্ছে। যা কিছু শিখেছি যথার্থ স্থানে সেগুলোর প্রয়োগ করতে পারলেই হয়। ’’

সাফল্যের মূলমন্ত্র আত্মবিশ্বাস। কোচরা খেলোয়াড়দের মনোবল বাড়াতে চেষ্টা করছেন। পেছন থেকে প্রেরণা যোগাচ্ছেন অভিজ্ঞ মাশরাফি।

পেস আক্রমণই হতে পারে নিউজিল্যান্ডের জন্য মারণাস্ত্র। শফিউল ইসলাম, রুবেল হোসেনদের নিয়ে নেতা মাশরাফি প্রতিপক্ষকের ওপর আঘাত হানতে পারলে লড়াইটা দারুণ হবে। ইয়ান পন্টের কাছ থেকে পাকাপোক্ত হয়ে নিচ্ছেন পেস বোলাররা। আপাতত বেসিক বিষয়গুলো নিয়েই কাজ করছেন ইংলিশ কোচ। মাশরাফি জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে নতুন করে কিছু শেখাচ্ছেন না কোচ। এপর্যন্ত আমরা যা শিখেছি সেগুলোই ঝালাই করে নিচ্ছি। বেসিক জিনিসগুলো ইওয়র্কার, বাউন্স, গুডলেন্থে বল করা, নিশানায় বল করা, এইগুলোতে উন্নতির চেষ্টা করছি। ”

অধিনায়কের মতে,‘‘স্পিনাররাই মূলত দুই তিন বছর হলো দলকে সার্ভিস দিয়ে যাচ্ছে। আমার মনে হয় ম্যাচ জিততে হলে পেস বোলারদেরও পারফর্ম করতে হবে। আমি মনে করি ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ করে বোলাররা। ব্যাটসম্যানরা যে রান করবে সেটাকে রক্ষা করা বোলারদের দায়িত্ব। আমরা পেস বোলাররা যদি স্পিনারদের সুযোগ করে দিতে পারি তবে খুবই ভালো হবে। ”

ফিল্ডিংয়েও বিশেষজ্ঞ কোচ আছে। কঠোর অনুশীলনও হচ্ছে। অন্তত এই একটি জায়গায় নিউজিল্যান্ডকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারবে বাংলাদেশ। অধিনায়কেরও তেমনই বিশ্বাস,“ফিল্ডিংয়ে আমরা বরাবরই সমস্যা ছিলো। চেষ্টা করছি ফিল্ডিংয়ে উন্নতি করার। এই একটা জায়গায় উন্নতি করলে ২০/২৫ টা রান সেভ করা যায়। যা খুবই কাজে দেবে। আমার মনে হয় নিউজিল্যান্ড সিরিজে ফিল্ডিংয়ে ভালো করা সুযোগ থাকবে। ”

তামিম ইকবালের হাতে অস্ত্রোপচার হয়েছে। মারকুটে এই ব্যাটসম্যানকে ছাড়াই মাঠে নামতে হবে বাংলাদেশকে। তামিমের অভাব অধিনায়কও আঁচ করতে পারছেন। তাই বলে নিরাশ হচ্ছে না মাশরাফি,“তামিম এই মুহূর্তে বিশ্বের অন্যতম সেরা উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান। তার অভাব কিছুটা তো থাকবেই। আশা করি শাহরিয়ার নাফিস খারাপ করবে না। ওর অভিজ্ঞতা আছে। হয়তো তামিমের মতো বলের চেয়ে রান বেশি করতে পারবে না নাফিস। কিন্তু বলের সমান রান করতে পারবে। ”

অধিনায়কের সহকারী বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসান এই মুহূর্তে ফর্মের তুঙ্গে। কাউন্টি ক্রিকেট মাতিয়ে এসেছেন জাতীয় দলের এই বাঁহাতি অল-রাউন্ডার। আসন্ন হোমসিরজ নিয়ে সহ-অধিনায়কও আশাবাদি,“আশা করি একটা ভালো সিরিজ হবে। প্রস্তুতি ভালো হচ্ছে। প্রতিটি বিভাগেই বিশেষজ্ঞ কোচের অধীনে প্র্যাকটিস চলছে। আমার বিশ্বাস প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট খেলতে পারবো। ”

বাংলাদেশ সময়: ২০২২ ঘন্টা, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa