ঢাকা, সোমবার, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

খেলা

শেখ রাসেলের হয়ে জ্বলে উঠেছিলেন তারা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৩৩ ঘণ্টা, আগস্ট ৩, ২০২২
শেখ রাসেলের হয়ে জ্বলে উঠেছিলেন তারা

রাজশাহী: মেঘ আর সূর্যের লুকোচুরিতে রাজশাহীর মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়াম যখন বার বার অনুজ্জ্বল হয়ে যাচ্ছিল। ঠিক তখনই যেন শেখ রাসেলের হয়ে মাঠে জ্বলে উঠেছিলেন তারা।

তাই গোল উৎসবে মাতোয়ারা হয়ে উঠেছিল গোটা স্টেডিয়াম। তীব্র গরমের পরম আগ্রহ নিয়ে আজ যারা মাঠে খেলা দেখতে স্টেডিয়ামের বর্ণিল গ্যালারিতে গিয়েছিলেন তাদের হতাশ করেনি বিপিএল'র দাপুটে ফুটবল দল শেখ রাসেল। আর শেষ খেলাটা রাঙিয়েছিল রিচার্ডরা।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) রাজশাহীর মাঠে স্বাগতিক স্বাধীনতা ক্রীড়া চক্রকে ৪-১ গোলের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে ষষ্ঠ স্থানে এখন শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। লিগ টেবিলে ৮ম স্থানে থাকা এই দলটি শেষ খেলায় জয়লাভ করে ষষ্ঠ স্থানে উঠে আসলো। ২২ খেলা শেষে তাদের পয়েন্ট ৩১।  

আর একই দিনে কুমিল্লা জেলা স্টেডিয়ামে মোহামেডান স্পোটিং ক্লাব ৭-০ গোলে রহমতগঞ্জকে পরাজিত করে ২২ খেলা শেষে ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে ৫ম স্থানের মধ্যে দিয়ে শেষ হলো টিভিএস বিপিএল ফুটবল-২০২২।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি রাজশাহী জেলা স্টেডিয়ামে টিভিএস বিপিএল ফুটবলের শেষ রাউন্ডের খেলায় শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র ৪-১ গোলে পরাজিত করে স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘকে। ইতোমধ্যে স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘ ১০ ও উত্তরা বারিধারা ১৪ পয়েন্ট নিয়ে রেলিগেশনে নেমে গেছে। তাই স্বাধীনতা ক্রীড়া চক্রের জন্য এই খেলাটি ছিল শুধু মাত্র আনুষ্ঠানিকতা। অপরদিকে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের কাছে ৮ম স্থান থেকে উপরে ওঠার একটি সুবর্ণ সুযোগ। যদিও ঢাকা মোহামেডান পরাজিত করলে বা খেলা ড্র হলে শেখ রাসেল ৫ম স্থান অধিকার করে নিত।

খেলা উভয়ার্ধ্বেই আধিপত্ত বিস্তার করেছিল আজ শেখ রাসেল। তারা ৪-১ গোলের ব্যবধানে স্বাগতিকদের বিরুদ্ধে জয় তুলে নিয়েছে। প্রথমার্ধে তিন বিদেশি খেলোয়াড়েদের গোলে ৩-০ গোলে এগিয়ে যায় শেখ রাসেল। খেলার ১৫ মিনিটে ডি বক্সের বাহির থেকে ঘানার খেলোয়ার রির্চাড গোল করেন। এরপর আইভরী কোস্টের খেলোয়াড় ফেই জন চার্সল ডিডিয়ার ২য় গোলটি করেন। খেলার ৩৪ মিনিটে মিনিটে ডিবক্সে ডিডিয়ারকে ফাউল করলে রেফারী সবুজ দাস পেনাল্টির নির্দেশ দেন। এই সুযোগে নাইজেরিয়ার খেলোয়াড় ইসমাহিল দলের পক্ষে স্বাধীন ক্রীড়া চক্রের জালে বল জড়িয়ে তৃতীয় গোলটি করেন। খেলার দ্বিতীয়ার্ধের ৪৯ মিনিটে স্বাধীনতার জাহিদকে ডিবক্সে ফাউল করলে রেফারি শেখ রাসেলের বিরুদ্ধে পেনাল্টি দিলে আসিক গোল করে খেলা ৩-১ গোলের ব্যবধানে ফিরে আসে। এর পর ৭৫ মিনিটে মানিক হোসেন মোল্লা একটি দর্শনীয় গোল করে ৪-১ গোলের বিশাল ব্যবধান গড়ে তোলেন। এরপর খেলা ৯০ মিনিট পর্যন্ত চলে শেষ হয়। আর পুরো খেলা জুড়েই আক্রমণাত্মক খেলে মাঠ দখলে রাখেন শেখ রাসেলের খেলোয়াড়েরা।

লিগের পয়েন্ট তালিকা অনুযায়ী শেখ রাসেলের ২২ খেলায় ৩১ পয়েন্ট অর্জন করে ষষ্ঠতম স্থানে আর স্বাধীনতার ২২ খেলায় ১০ পয়েন্ট নিয়ে ১২তম স্থানে থেকেই মাঠ ছাড়তে হয়।

বাংলাদেশ সময়: ০০৩৪ ঘণ্টা, আগস্ট ০২, ২০২২
এসএস/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa