ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯ সফর ১৪৪৩

খেলা

জাতীয় দল নির্বাচক কমিটির মেয়াদ বাড়ছে বিশ্বকাপ পর্যন্ত

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০১৪ ঘণ্টা, জুলাই ২০, ২০১০

ঢাকা: জাতীয় দল নির্বাচক বর্তমান কমিটির মেয়াদ বাড়ছে ২০১১ সালের বিশ্বকাপ পর্যন্ত। এ নিয়ে তৃতীয় দফায় মেয়াদ বাড়ানো হচ্ছে।



বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, ২০১১ সালের ৩১ মার্চ পর্যন্ত মেয়াদ বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি থেকে গত ১৮ মে বিসিবির কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় প্রস্তাবনা পেশ করা হয়। যদিও ওই সভায় বিষয়টি নিয়ে কোন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তবে আগামী ৩১ জুলাই নির্বাহী কমিটির সভায় চূড়ান্ত অনুমোদন পেতে পারে।

বিশ্বকাপের আগে তিন সদস্যের নির্বাচক কমিটিতে পরিবর্তন আনার পক্ষে নন বিসিবির বেশিরভাগ পরিচালক। সেক্ষেত্রে প্রধান নির্বাচক রফিকুল আলমের নেতৃত্বে জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক আকরাম খান এবং সর্বশেষ নিয়োগ পাওয়া জাহিদ রাজ্জাক মাসুম বিশ্বকাপ দল নিয়ে কাজ করার সুযোগ পাচ্ছেন। প্রথম টেস্ট অধিনায়ক নাঈমুর রহমান দুর্জয় নির্বাচকের পদ ছেড়ে দেওয়ায় মাসুমকে নিয়োগ দেওয়া হয়।  

তিন সদস্যের এ কমিটির বর্তমান মেয়াদ শেষ হয়েছে ৩০ জুন। কিন্তু এখন পর্যন্ত নতুন চুক্তির বিষয়ে কিছুই জানেন না নির্বাচকরা। আগের মতো এবারও অনিশ্চয়তার দোলাচলে রফিকুল ইসলামের কমিটি। হতাশা কাজ করায় আগ্রহটাও হারাতে বসেছেন।

যদিও জাতীয় দল ইউরোপ সফরে থাকায় নিয়মিতই খোঁজ খবর রাখতে হচ্ছে নির্বাচকদের। শুধু তাই নয় জিপি-বিসিবি একাডেমি দল এবং এশিয়ান গেমসের জন্য প্রশিক্ষণ দল নির্বাচন করতে হয়েছে। একাডেমি দলের অনুশীলন দেখতে সোমবারও বিসিবি কার্যালয়ে এসেছিলেন আকরাম খান এবং মাসুম। প্রধান নির্বাচক বাসায় বসে অনলাইনে কাজ চালিয়ে নিচ্ছেন।

আগের চুক্তি অনুযায়ী জুন মাসের বেতন তুলেছেন নির্বাচকরা। মেয়াদ শেষেও কাজের বিষয়ে জানতে চাইলে আকরাম খান বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে বলেন,“বিসিবি থেকে আমাদেরকে তো নিষেধ করেনি। তাছাড়া জাতীয় দল দেশের বাইরে। বিশেষ করে একাডেমি এবং এশিয়ান গেমসের জন্য দল গড়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছিলো। এ কাজ তো করতেই হবে। ”

তবে চলতি মাসের বেতন পাবে কিনা এবিষয়ে নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারেননি আকরাম খান। এমন সমস্যা আগেও হয়েছে। চুক্তির মেয়াদ শেষেও কাজ করেছেন নির্বাচকরা। বেতনও পেয়েছেন। এনিয়ে ভয়ে থাকার কথা নয় তাদের। অনেকটা গা সওয়া হয়ে গেছে।

নির্বাচকদের চুক্তির মেয়াদ নিয়ে বিসিবির বর্তমান কমিটি বরাবরই ধোয়াটে পরিস্তিতি তৈরি করে রেখেছে। এর আগে দুবার মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেলেও নির্বাচকদের নিয়ে খুব একটা গরজ দেখাননি পরিচালকরা। উল্টো তাদেরকে বশে রাখতে কঠোর আইন তৈরিতে ব্যস্ত থেকেছেন বোর্ড কর্মকর্তারা। এমনকি তিন নির্বাচকের কাজ দেখভালের জন্য একটি কমিটিও গড়ে দেওয়া হয়েছে।

নির্বাচকদের মেয়াদ সম্পর্কে জানতে চাইলে বিসিবির পরিচালক গাজী আশরাফ হোসেন লিপু বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে বলেন,“বর্তমান নির্বাচক কমিটিই বিশ্বকাপ পর্যন্ত থাকবেন। প্রস্তাবনাও তৈরি করা হয়েছে। আগামী সভাতে অনুমোদন দেবে কার্যনির্বাহী কমিটি। অতএব নির্বাচকরা সংশয় বা শঙ্কা মুক্ত থাকতে পারেন। ”

জাতীয় দল নির্বাচকদের নিয়মিত কাজ চালিয়ে যাওয়ার পরামর্শও দিয়েছেন লিপু। আরেক পরিচালক এবং বিশ্বকাপ আয়োজক কমিটির স্থানীয় আহবায়ক দেওয়ান শফিউল আরেফিন টুটুলও নিশ্চিত করেছেন বর্তমান নির্বাচক কমিটিতে কোন পরিবর্তন আসবে না।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫২ ঘন্টা, জুলাই ২০, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa