ঢাকা, শনিবার, ১ কার্তিক ১৪২৮, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

খেলা

মশার কয়েলের জরিমানা দিচ্ছে বাংলাদেশ

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট, গুয়াংজু থেকে | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৪৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৯, ২০১০
মশার কয়েলের জরিমানা দিচ্ছে বাংলাদেশ

গুয়াংজু: একটি বৈদ্যুতিক মশার কয়েল বাংলাদেশের জন্য লজ্জা হয়ে গেলো। কয়েলটি চীনে তৈরি।

গুয়াংজু এশিয়ান গেমস ভিলেজে মশার উৎপাত থেকে বাঁচার জন্য কয়েলটি দেওয়া হয়েছিলো ফুটবলের কর্মকর্তা ফজলুর রহমান বাবুলকে। যে কয়দিন গুয়াংজুতে ছিলেন কয়েলের সুবিধা পুরো ভোগ করেছেন। যাওয়ার সময় সেটাকে সঙ্গে নিয়ে গেছেন!

ফুটবল দল দেশে ফেরার জন্য ১৬ নভেম্বর গুয়াংজু বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর বাংলাদেশের ডেপুটি সেভ দি মিশন আব্দুল আওয়াল সরকার মজনু জানতে পারলেন বাবুলের কক্ষের কয়েলটি খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এজন্য জরিমানা দিতে হবে।

টাকার অঙ্কটা বেশি নয়। মাত্র ৩৪ আরএমবির (চীনের মূদ্রা) কিছুটা বেশি। পরের ঘটনার বর্ণনা মজনু দিচ্ছিলেন,“আমাকে দিয়ে একটা কাগজে আয়োজক কর্মকর্তারা লিখিয়ে নেয়, জরিমানা দিতে হবে। আমি লিখিত দিয়ে বাবুল সাহেবের সঙ্গে যোগাযোগ করি। তিনি বলেন, আমি জানি না কেউ আমার ব্যাগে কয়েলটা ঢুকিয়েছে কি না। হয়তো অন্যকেউ নিয়ে গেছে। সুযোগ পেলে ওরা হয়তো বাবুল সাহেবের লাগেজ চেক করতো। কি লজ্জার কথা বলেন। আমি সবাইকে আগে থেকে জানিয়ে দিয়েছি, তোয়ালে, মশার কয়েল এবং টর্চ লাইট নেওয়া যাবে না। দেয়াল প্রিন্টসহ অন্যান্য জিনিসগুলো নিতে পারবে। কেন যে উনি এটা করলেন! একটা কয়েলের দাম আর কতো। উনার জন্য আমরা ছোট হয়ে যাচ্ছি। দেশের মানুষের চরিত্র নিয়েও প্রশ্ন উঠবে। চাইনিজরা কী ধরণা পোষণ করবে আমাদের নিয়ে?”

প্রতি এশিয়ান গেমসেই অনাকাক্সিত দু’একটা ঘটনার জন্ম দেন বাংলাদেশের ক্রীড়াবিদ নয়তো কর্মকর্তারা। এবার ক্রীড়া বিদরা এখনো তেমন কিছু করেননি। তবে একজন কর্মকর্তা কিছু একটা করেছেন!

গুয়াংজু সময়: ২১৩৬ ঘন্টা, নভেম্বর ১৯, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa