ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ কার্তিক ১৪২৮, ২৯ অক্টোবর ২০২১, ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

খেলা

প্রীতি ম্যাচে আর্জেন্টিনার কাছে হার ব্রাজিলের

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৫৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৮, ২০১০
প্রীতি ম্যাচে আর্জেন্টিনার কাছে হার ব্রাজিলের

দোহা: আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে বুধবার মুখোমুখি হয়েছিলো লাতিন আমেরিকার দুই ফুটবল পরাশক্তি ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। অবশ্য দুই দৈত্যের লড়াইয়ে শেষপর্যন্ত বিজয়ের হাসি হেসেছে আর্জেন্টিনা।

লিওনেল মেসির গোলে তারা ১-০ তে  হারিয়েছে ব্রাজিলকে।

২০০৫ সালের পর চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের সঙ্গে এনিয়ে ছয়বার সাক্ষাত হয়েছে আর্জেন্টিনার। তবে জয় ছিলো অধরাই। অবশেষে সেই কাঙ্ক্ষিত জয়ের দেখা পেলেন দিয়েগো ম্যারাডোনার উত্তরসূরি সার্জিও বাতিস্তা। বাতিস্তার অধীনে এপর্যন্ত চারটি প্রীতি ম্যাচের তিনটিতেই জিতেছে মেসিরা। হেরেছে কেবল জাপানের কাছে (১-০)।

পরিসংখ্যানে পিছিয়ে নেই ব্রাজিলের নতুন কোচ মানো মেনেজেসও। চারটি প্রীতি ম্যাচের মধ্যে জয় তিনটি। আর হোঁচট খেলেন কেবল দোহায় এসে।

দুই দলই সহজ সুযোগ নষ্ট করায় প্রথমার্ধ থাকে গোলশূন্য। বিরতির পর আবারো চলে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণ। গঞ্জালো হিগুয়েন, মেসি আর ডি মারিয়ারা ব্রাজিলের রক্ষণদুর্গ তছনছ করার চেষ্টা করেছেন। তবে ছেড়ে কথা বলেননি রোনালদিনহো আর রবিনহোরাও। সংঘবদ্ধ আক্রমণের মাধ্যমে পাল্টা জবাবও দিয়েছেন। যদিও দেখা মিলেনি গোল নামক সেই সোনার হরিণের।

অবশেষে ইনজুরি টাইমে কাঙ্ক্ষিত সেই গোলের দেখা পেয়ে যায় আর্জেন্টিনা। নেপোলির জেকুয়েল লাভেজ্জির বাড়িয়ে দেওয়া বলে নিশানাভেদ করেন বার্সেলোনার ফরোয়ার্ড মেসি।

ব্রাজিলের বিপক্ষে এই প্রথম গোল করলেন মেসি। আর জয়ও পেলো দল। তাই দারুণ খুশি ফিফা’র ২০০৯ সালের বর্ষসেরা খেলোয়াড়। বলেন,“জয় সবসময়ই গুরুত্বপূর্ণ। তবে এই জয়ের তাৎপর্য অন্যরকম। কারণ আমরা জিতেছি চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর (ব্রাজিল) বিপক্ষে। ”

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৮ ঘন্টা, নভেম্বর ১৮, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa