ঢাকা, রবিবার, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

খেলা

ফুটবল উরুগুয়েতে ধর্মের কাছাকাছি

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৫২ ঘণ্টা, জুলাই ৪, ২০১০
ফুটবল উরুগুয়েতে ধর্মের কাছাকাছি

মন্টেভিডিও: লাতিন অঞ্চলে উদারপন্থী হিসেবে পরিচিত উরুগুয়ের মানুষ ধর্মের ব্যাপারে খুব বেশি ভাবে না। কিন্তু উরুগুয়ে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পৌঁছার পর লোকজনের ধর্মের জায়গা দখল করে নিয়েছে ফুটবল।



মাত্র ৩৪ লাখ জনসংখ্যা নিয়েও দুইবারের বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ে। ১৯৩০ ও ১৯৫০ সালের বিশ্বকাপ জিতেছে। সোমবার নিজেদের পঞ্চম বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে খেলবে তারা।

‘‘উরুগুয়ের লোকজনের মধ্যে সেতুবন্ধন হচ্ছে ফুটবল। অনেক আগে থেকেই জনগণের মধ্যে ঐক্য গড়ে দিয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় এই খেলাটি। ’’ এ কথা বলেছেন ফুটবল ইতিহাস গবেষক লুই প্রাতস।

কোচ ওস্কার তাবারেজ বলেন,‘‘উরুগুয়ে এমন একটি দেশ যাদের ফুটবল সংস্কৃতিটা অনেক সমৃদ্ধ। ফুটবল ভক্তরা বাদেও সবার কাছেই খেলাটা গুরুত্বপূর্ণ। ’’

বিশ্ব ফুটবলে উরুগুয়ের সাফল্যও কম নয়। ১৯১৬ সালে প্রথমবারের মতো কোপা আমেরিকা কাপ জয় করে। এরপর একে একে কোপা আমেরিকাতে ১৪ বার শিরোপা জিতে আর্জেন্টিনার সঙ্গে যুগ্মভাবে শীর্ষে রয়েছে।

বর্হিবিশ্বে তাদের পরিচিতি এনে দিয়েছে এই ফুটবল। ১৯২৪ ও ’২৮  সালের অলিম্পিকে ফুটবলে স্বর্ণ পদক জিতেছে তারা। ১৯৩০ সালে প্রথম বিশ্বকাপের স্বাগতিক হিসেবে শিরোপা জিতেছিলো।

২০ বছর পর ব্রাজিলের মাটিতে স্বাগতিকদের হারিয়ে দ্বিতীয় বিশ্বকাপও (জুলে রিমে ট্রফি) ঘরে তোলে। এরপর লাতিন অঞ্চলের ফুটবলে রাজত্ব করে দুই প্রতিবেশী ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা।

১৯৭০ সালের বিশ্বকাপে চতুর্থ হওয়ার পর দীর্ঘ সময় জুড়ে সাফল্য খরায় ভুগছে দেশটি। দীর্ঘ চার দশক পর দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপে ফের সাফল্য পেয়েছে। যদিও কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই বিদায় নিয়েছে দুই লাতিন ফুটবল পরাশক্তি আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিল।

বাংলাদেশ সময়: ২২৩২ ঘন্টা, জুলাই ০৪, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa