ঢাকা, শনিবার, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

খেলা

সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচের আগে সাকিব-ভেট্টোরির ঠান্ডা যুদ্ধ

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৩, ২০১০
সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচের আগে সাকিব-ভেট্টোরির ঠান্ডা যুদ্ধ

ঢাকা: সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচের আগের দিন দুই অধিনায়ককে পাশাপাশি দাঁড় করিয়ে দিলো মাইক্রো ম্যাক্স ওডিআই কাপ ট্রফি উন্মোচন অনুষ্ঠান। খুব কাছাকাছি দাঁড়িয়ে দুজন।

অথচ একে অন্যের সঙ্গে একটি বাক্য বিনিময়ও করেননি।

বাংলাদেশ অধিনায়ক মিটি মিটি হাসছিলেন। চোখে মুখে আত্মবিশ্বাসের ছাপ। মনের ভেতর পর্যন্ত পড়ে নেওয়া যাচ্ছিলো। তবুও মুখে কিছু বলতে চাইলেন না সাকিব আল হাসান। ট্রফি জয়ের স্বপ্ন দেখছেন? এমন প্রশ্নের উত্তর অবাচনিক ভাষায় দিলেন রহস্যময় হাসিতে, এদিক ওদিক মাথা দুলিয়ে। যার অর্থ হতে পারে স্বপ্ন দেখে নিরাশ হতে চাই না। খেলেই দেখাবো!

নিশ্চয় সিরিজ জয়ের অপেক্ষায় আছেন? এবারও মিষ্টি করে হাসলেন। পাশ থেকে মিডিয়া ম্যানেজার হোটেলে ফেরার তাড়া দেওয়ায় চলে যেতে হলো সাকিবকে। অধিনায়ক স্পষ্ট করে কিছু না বললেও বোঝার বাকি রইলো না সিরিজ নিশ্চিত করতে মুখিয়ে আছেন ক্রিকেটাররা।

উল্টো দৃশ্য ড্যানিয়েল ভেট্টোরির বেলায়। নিউজিল্যান্ড অধিনায়কের ফর্সা মুখ বিবর্ণ দেখাচ্ছিলো। ট্রফি উন্মোচন অনুষ্ঠান শেষ করে মঞ্চ ছাড়তে পারলেই বাঁচেন। আনুষ্ঠানিকতা শেষে একমুহূর্তের জন্যও দাঁড়ালেন না কিউই অধিনায়ক। সোজা মাঠে চলে গেলেন। মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের পুরোটা জুড়ে অনুশীলন করতে থাকেন অতিথিরা। কেন্দ্রীয় উইকেটে বোলিংয়ের সুযোগও পেয়ে যান ড্যানিয়েল ভেট্টোরিরা।

শরীরের সব শক্তি দিয়ে বোলিং করছিলেন ভেট্টোরি। পারলে স্বাগতিক ব্যাটসম্যানদের তখনই চ্যালেঞ্জ জানাতেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে তাকে। শুধু স্পিন নয়, পেস বোলাররাও উইকেটে বোলিং করেছেন।

অন্যরা ফিল্ডিং, ব্যাটিং দিয়ে প্রস্তুত হচ্ছিলেন। প্রত্যেকের শরীরিকভাষা দেখে মনে হয়েছে সাকিবদের গুঁড়িয়ে দিতে নুন্যতম ছাড় দেবে না। বরং টানা দুই ম্যাচ হারের প্রতিশোধ নিতে উদগ্রীব হয়ে আছেন ব্রেন্ডন ম্যাককালামরা।

অনুশীলন শুরুর কয়েক মিনিট পর নিউজিল্যান্ড দলের ম্যানেজার মিশেল শার্প বাংলাদেশের সাংবাদিকদের জন্য বার্তা পাঠালেন, তাদের কোন ক্রিকেটার কথা বলতে রাজি নন। তবে অন্যরকম বার্তাও দিয়েছেন শার্প। “কাল তোমাদের সঙ্গে আমাদের দেখা হবে। ”

এখন সময় বাংলাদেশের। ভেট্টোরিদের হুমকিতে কিছু আসে যায় না। জয় ছাড়া কিছুই ভাবছেন না শাহরিয়ার নাফিসরা। “ম্যাচটি আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এই ম্যাচ জিতলে সিরিজ নিশ্চত হবে। আমরা খুবই আশাবাদী। সবাই কঠিন পরিশ্রম করেছি। মানসিক প্রস্তুতিও ভালো। চেষ্টা করবো মাঠে সর্বস্ব দিয়ে সিরিজ জিততে। ”

শিকার বধের জন্য টাইগাররা ওঁত পেতে আছেন। প্রত্যেকেই এখন ফুরফুরে মেজাজে। আত্মবিশ্বাস অনেক উঁচুতে। সব কিছু ঠিক থাকলে বৃহস্পতিবার শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের বিকালটা অন্যরকম হতে পারে। ২-০ তে এগিয়ে থেকেও একেবারে চাপ মুক্ত হতে পারছে না বাংলাদেশ দল।

শাহরিয়ার নাফিসের ভাষায়,“নিউজিল্যান্ড বিশ্ব ক্রিকেটে অন্যতম পরাশক্তি। ওরা ভালো ক্রিকেট খেলে থাকে। তবে এই মুহূর্তে আমরা ভালো ক্রিকেট খেলে জিতেছি। নিউজিল্যান্ড যে কোন সময় ‘বাউন্সব্যাক’ করতে পারে। আমাদের কোচ বলেছেন উন্নতির এখনও অনেক জায়গা আছে। সবকিছু ঠিক মতো করতে পারলে ভালো ক্রিকেট হবে। দিন শেষে হয়তো সাফল্য দেখা যাবে। ”

আগের দুই ম্যাচের সফল ব্যাটসম্যান শাহরিয়ার নাফিস ধারাবাহিক থাকতে চান। বলেন,“প্রথম ম্যাচে ৩৫, দ্বিতীয় ম্যাচে ৭৩ করেছি। এই ইনিংসগুলো আরো বড় হতে পারতো। পরের ম্যাচে এরকম শুরু করতে পারলে আরেকটু লম্বা ইনিংস খেলার চেষ্টা করবো। ”

মিরপুরের উইকেটে আড়াইশ রান অনেক ভালো স্কোর। মুশফিকুর রহিম, ইমরুল কায়েস, রকিবুল হাসানরা ব্যাটিংয়ে অনেক পরিশ্রম করছেন দেড় মাসেরও বেশি সময় ধরে। সুফলও পেতে শুরু করেছেন। মাইক্রো ম্যাক্স ওডিআই কাপের চতুর্থ ম্যাচে নিজেদের সর্বস্ব উজাড় করে দিয়ে ম্যাচ জয়ের চেষ্টা করবেন বলে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন তারা।

দেশের মাঠে বাংলাদেশ দলের মূল অস্ত্র বোলিং। বিশেষ করে বাঁহাতি স্পিন। চতুর্থ ম্যাচে একাধারে চার বাঁহাতি স্পিনার বল করবেন। আব্দুর রাজ্জাক, সোহরাওয়ার্দী শুভ, সাকিব আল হাসানের সঙ্গে যোগ হতে পারেন নাঈম ইসলাম। প্রধান নির্বাচক রফিকুল আলম জানিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের জায়গায় খেলতে পারে নাঈম।

অবশ্য সিরিজ বাঁচিয়ে রাখতে আপ্রাণ চেষ্টা করবে নিউজিল্যান্ড। চেষ্টা করবে টানা দুই ম্যাচ জিতে অন্তত ড্র নিয়ে দেশে ফিরার। অতএব আগের দুই ম্যাচের চেয়ে চতুর্থ ওয়ানডে কঠিন লড়াইয়ের মুখে পড়তে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

সকাল নয়টায় মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু হবে খেলা।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪২ ঘন্টা, অক্টোবর ১৩, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa