ঢাকা, শনিবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৮ মে ২০২৪, ০৯ জিলকদ ১৪৪৫

শেয়ারবাজার

ডিবিএ’র সভাপতি হচ্ছেন লালী ও মোশতাক

মাহফুজুল ইসলাম, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬৫৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৩, ২০১৬
ডিবিএ’র সভাপতি হচ্ছেন লালী ও মোশতাক

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্রোকারেজ মালিকদের সংগঠন ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশনের (ডিবিএ) সভাপতি হচ্ছেন আহমেদ রশিদ লালী ও মোশতাক আহমেদ সাদেক। 

ঢাকা: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্রোকারেজ মালিকদের সংগঠন ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশনের (ডিবিএ) সভাপতি হচ্ছেন আহমেদ রশিদ লালী ও মোশতাক আহমেদ সাদেক।  

তারা দু’জন আগামী দুই বছর (২০১৭ ও ২০১৮) মেয়াদী কমিটির এক বছর করে সভাপতির দায়িত্ব পালন করবেন।

 

সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, ডিবিএ’র নির্বাচনে ২০ নভেম্বর জয়ী ১৫ পরিচালক মিলে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন যে, দুই বছর মেয়াদী নির্বাচিত প্রথম কমিটির সভাপতি, সিনিয়র সহ-সভাপতি এবং সহ-সভাপতি দু’জন করে দায়িত্ব পালন করবেন।  

বুধবার (২৩ নভেম্বর) প্রতিষ্ঠানের বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির কাছ থেকে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন তারা।

প্রথম বছর সভাপতি আহমেদ রশিদ লালী, সিনিয়র সহ-সভাপতি মোশতাক আহমেদ সাদেক ও খুজিস্তা নূর-ই নাহরীন। এর মধ্যে ২০১৭ সালে দায়িত্ব পালন করবেন রশিদ ইনভেস্টমেন্ট সার্ভিসেস লিমিটেডের এমডি ও ডিএসইর সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি আহমেদ রশিদ লালী। তিনি নির্বাচনে ২১৭ ভোটের মধ্যে ১৪২ ভোট পেয়ে ১৪তম হয়েছেন।

তার নেতৃত্বের এ কমিটিতে সিনিয়র সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করবেন ইনভেস্টমেন্ট প্রমোশন সার্ভিসের এমডি মোশতাক আহমেদ সাদেক। তিনি নির্বাচনে ১৭৩ ভোট পেয়ে ১২তম পরিচালক পদে নির্বাচিত হন।  

এছাড়াও কমিটিতে সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করবেন মডার্ন সিকিউরিটিজের এমডি ও ডিএসইর সাবেক পরিচালক খুজিস্তা নূর-ই নাহরীন। তিনি এ নির্বাচনে ১৯০ ভোট পেয়ে চতুর্থবারের মতো নির্বাচিত হন। শেষ বছর সভাপতি মোশতাক আহমেদ সাদেক, সিনিয়র সহ-সভাপতি শরীফ আনোয়ার হোসেন (দিলীপ), সহ-সভাপতি জহিরুল ইসলাম।  

এর পরের বছর ও মেয়াদের শেষ বছর (২০১৮ সালে) ডিবিএ’র সভাপতির দায়িত্ব পালন করবেন মোশতাক আহমেদ সাদেক। সিনিয়র সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন এমডি শহিদুল্লাহ সিকিউরিটিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন পরবর্তী ডিএসইর নির্বাচিত পরিচালক শরীফ আনোয়ার হোসেন (দিলীপ)।  

তিনি এ বারের নির্বাচনে ২০৩ ভোট পেয়ে দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচিত হন। এছাড়াও নির্বাচনে ২০৪ ভোট পেয়ে প্রথম হওয়া প্রাইলিংক সিকিউরিটিজের চেয়ারম্যান মো. জহিরুল ইসলাম সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করবেন।

নতুন কমিটির নির্বাচিত বাকি পরিচালকরা হলেন-ডিবিএল সিকিউরিটিজের মো. আলী, রাস্তি সিকিউরিটিজের সৈয়দ রিদওয়ানুল ইসলাম, সাদ সিকিউরিটিজের মো. দেলোয়ার হোসেন, গ্লোবাল সিকিউরিটিজের রিচার্ড ডি রোজারিও, কান্ট্রি স্টক বাংলাদেশ লিমিটেডের খাজা আসিফ আহমেদ, শ্যামল ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের সাজেদুল ইসলাম, ইউনিক্যাপ সিকিউরিটিজের ওয়ালি উল ইসলাম, রয়েল গ্রিন সিকিউরিটিজের আব্দুল হক, থিয়া সিকিউরিটিজের মাহবুবুর রহমান ও শাহেদ সিকিউরিটিজের শাহেদ আব্দুল খালেক।

নাম না প্রকাশ শর্তে একাধিক নির্বাচিত পরিচালক বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  

তারা বলেন, মঙ্গলবার অনির্ধারিত কমিটির এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সন্ধ্যা ৭টায় শুরু হওয়া বৈঠকটি শেষ হয় রাত সাড়ে ১০টায়।

ডিএসইর বর্তমান পরিচালক রকিবুর রহমানের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে নির্বাচিত ১৫ সদস্য ছাড়াও অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

স্টক এক্সচেঞ্জের মালিকানা থেকে ব্যবস্থাপনা পৃথক হওয়ার (ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন) আগ পর্যন্ত ডিএসইর পর্ষদ মূলত তাদের সদস্যদের নিয়ন্ত্রণে ছিলো।

ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশনের পর পর্ষদে ব্রোকারদের প্রতিনিধিত্ব এক-তৃতীয়াংশে নেমে এসেছে। পরবর্তীতে ব্রোকারেজ হাউজগুলোর ফোরাম হিসেবে ২০১৪ সালে যাত্রা করে ডিবিএ। প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হিসেবে বর্তমানে সংগঠনটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন ডিএসইর সাবেক সভাপতি আহসানুল ইসলাম টিটু।

বাংলাদেশ সময়: ১২৫৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৩, ২০১৬
এমএফআই/এএটি/জেডএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।