ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ কার্তিক ১৪২৮, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সালতামামি

২০১৩ সালে বগুড়ায় ১০৩ হত্যাকাণ্ড

টি. এম. মামুন, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৩৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৩

বগুড়া: ২০১৩ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত বগুড়া জেলায় ১০৩টি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এর অধিকাংশই সংঘটিত হয়েছে আধিপত্য ও ব্যক্তিগত প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে।



প্রতি ঘটনায় পৃথকভাবে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা হয়েছে এবং মামলার বিপরীতে গ্রেফতার করা হয়েছে কমপক্ষে ৩০০ জনকে।  

সোমবার বগুড়া পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগ থেকে বাংলানিউজকে এ সব তথ্য সম্পর্কে নিশ্চিত করা হয়েছে।

প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, জানুয়ারি মাসে ৭টি, ফেব্রুয়ারি মাসে ৮টি, মার্চে ১৫টি, এপ্রিলে ১০টি, মে মাসে ১০টি, জুনে ৭টি, জুলাইয়ে ৭টি, আগস্টে ৭টি, সেপ্টেম্বরে ৮টি, অক্টোবরে ৮টি, নভেম্বরে ১০টি ও ডিসেম্বর মাসে ৬টি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। তথ্যমতে, সর্বাধিক হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে মার্চ মাসে।
স্থানীয়রা জানান, আধিপত্য ও ব্যক্তিগত প্রভাব বিস্তার ছাড়াও রাজনৈতিক কারণে কিছু হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।    

হত্যাকাণ্ডের এ সব ঘটনার মধ্যে ২৬ মে দুপুরে অবৈধ জমি দখলকে কেন্দ্র করে বগুড়া জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আসাদুর রহমান দুলুর উপস্থিতিতে সহ-সভাপতি ও শাজাহানপুর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আবু জাফর সিদ্দিক রিপনের বাসভবনে যুবলীগ নেতা মজনু মিয়া ও তার ভাতিজা নাহিদ, ২৭ ফেব্রুয়ারি রাতে বগুড়া-১ আসেনর সংসদ সদস্যের ব্যক্তিগত সহকারী আলমগীর শাহী সুমনের সরাসরি সহযোগিতায় জেলার সারিয়াকান্দি উপজেলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে সারিয়াকান্দি পৌর ছাত্রলীগ সভাপতি বিজয় রহমান বাবু এবং ৩ মার্চ জামায়াত-শিবিরের ১৩ কর্মী-সমর্থক খুনসহ কয়েকটি ঘটনা পুলিশ প্রশাসনকে বেশ সমালোচনার মুখে ফেলেছে।

বগুড়া পুলিশ সুপার (এসপি) মোজাম্মেল হক পিপিএম বাংলানিউজকে বলেন, ২০১৩ সালে রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে পুলিশকে নিয়মিত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি বিরামহীনভাবে অতিরিক্ত কিছু দায়িত্ব পালন করতে হয়েছে। সে কারণে বিচ্ছিন্নভাবে কিছু হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

তবে পুলিশ প্রশাসনের আন্তরিকতার কোনো অভাব ছিলনা এবং আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি কখনওই একেবারে খারাপ হয়ে যায়নি। তাছাড়া প্রায় সব হত্যাকাণ্ডের রহস্য উন্মোচন করতে পেরেছে পুলিশ।  

হত্যাকাণ্ডের রহস্য উন্মোচনের ক্ষেত্রে বগুড়ার পুলিশ প্রশাসন কী সাফল্যের দাবিদার, এমন প্রশ্নের জবাবে এসপি বলেন,  দুই-চারটি হত্যাকাণ্ড সারা বছরের বিভিন্ন ক্ষেত্রে পুলিশের অর্জনকে অনেকটা বাধাগ্রস্ত করেছে।  

এর আগের বছর অর্থাৎ ২০১২ সালে বগুড়া জেলায় ৯০টি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৪০৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৩
সম্পাদনা: কামরুল হাসান কাইউম, নিউজরুম এডিটর, আশিস বিশ্বাস, অ্যাসিস্ট্যান্ট আউটপুট এডিটর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa