ঢাকা, শনিবার, ৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০ সফর ১৪৪২

প্রবাসে বাংলাদেশ

টোকিওতে পালিত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২০
টোকিওতে পালিত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে বাংলাদেশ দূতাবাসে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করা হচ্ছে।

ঢাকা:  জাপানের টোকিওতে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে যথাযথ ভাবগাম্ভীর্য ও মর্যাদায় পালিত হয়েছে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস।

শুক্রবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকালে টোকিওর ইকেবুকুরো নিশিগুচি পার্কে অবস্থিত শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে দিবসের কর্মসূচির সূচনা হয়।

টোকিও দূতাবাস এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, দূতাবাসের চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স ড. শাহিদা আকতারের নেতৃত্বে দূতাবাসের সব কর্মকর্তা ও তোশিমা সিটির ভাইস মেয়র মাসাতো সাইতো পুস্পস্তবক অর্পণ করেন।

এ সময় প্রবাসী বাংলাদেশি নাগরিক ও অন্য অতিথিরা প্রভাতফেরীর মাধ্যমে শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি জানান।

পরে দূতাবাস প্রাঙ্গনে উপস্থিত সব কর্মকর্তা-কর্মচারী ও আগত অতিথিরা জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করেন চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স ড. শাহিদা আকতার। পতাকা অর্ধনমিত করার পর ভাষাশহীদদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন এবং তাদের আত্মার মাগফেরাত ও বাংলাদেশের সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

এছাড়া দূতাবাসের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে উপস্থিত দেশি-বিদেশি নাগরিকদের নিয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানে শহীদ দিবস  উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দেওয়া বাণী পাঠ করেন যথাক্রমে দূতাবাসের কাউন্সেলর ড. জিয়াউল আবেদিন, ড. আরিফুল হক, মো. জাকির হোসেন এবং প্রথম সচিব মুহা. শিপলু জামান।  

পরে চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স ড. শাহিদা আকতার সবার উদ্দেশ্যে স্বাগত বক্তব্য রাখেন। এসময় তিনি শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। এছাড়া ভাষণে তিনি ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান এবং ভাষা আন্দোলনের পটভূমি ও তাৎপর্য তুলে ধরেন। মুজিববর্ষ উপলক্ষে দূতাবাসের আয়োজনে বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করার জন্য তিনি প্রবাসী বাংলাদেশিদের আহ্বান জানান।      

অনুষ্ঠানে উম্মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন জাপান প্রবাসী বাংলাদেশ কমিউনিটির নেতারা। এছাড়া ভাষা আন্দোলন ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের ওপর একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। এসময় দূতাবাসের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন । অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন দূতাবাসের প্রথম সচিব আরিফ মোহাম্মদ।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৭ মিনিট, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২০
টিআর/এবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa