ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

রাজনীতি

‘জান ও জবানের স্বাধীনতা’র দাবিতে সমাবেশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২৫১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১
‘জান ও জবানের স্বাধীনতা’র দাবিতে সমাবেশ

ঢাকা: ‘জান ও জবানের স্বাধীনতা’ এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে রাজধানীর শাহবাগে প্রতিরোধ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সমাবেশ থেকে কারাগারে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে গত শুক্রবার বামপন্থী ছাত্র সংগঠনের মশাল মিছিল থেকে আটক হওয়া সাত ছাত্রনেতা এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতার শ্রমিক নেতা রুহুল আমিনের মুক্তি দাবি করা হয়।

রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় জাদুঘরের সামনে ‘বাক স্বাধীনতার দাবিতে বাংলাদেশ’ ব্যানারে এ প্রতিরোধ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

সমাবেশে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, লুটেরা-দুর্নীতিবাজদের নিরাপত্তার জন্য এই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন তৈরি করা হয়েছে। দুর্বৃত্ত ও লুটেরাদের রক্ষা করার জন্য সরকার নানাবিধ আইনি ও বেআইনি ব্যবস্থা নিচ্ছে। এসব অন্যায় জুলুমের বিরুদ্ধে আমাদের সংগঠিত হওয়া ছাড়া কোনো উপায় নেই।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক এম এম আকাশ বলেন, আজ আমি বিবেকের তাড়নায় এখানে উপস্থিত হয়েছি। জনগণ আজ ভীত এবং আতঙ্কিত।

সমাবেশে গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি বলেন,  স্বৈরাচারে পতন তখনই ঘটবে যখন আমরা দলীয় সংকীর্ণতা অতিক্রম করে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করতে পারব। এই সরকার ভোট ছাড়া ক্ষমতায় আছে। কোনো অজুহাত দিয়ে ভোট ছাড়া ক্ষমতায় থাকা বৈধ হতে পারে না।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক রেহনুমা আহমেদ বলেন, লেখক মুশতাকের মৃত্যুতে ভাষা হারা হতে হয়। আজকে আমরা সবাই   মুশতাক। স্বাধীনতার ৫০ বছরেও যদি ভাষা হারা হতে হয়, একজন লেখককে প্রাণ হারাতে হয় তাহলে এটি লজ্জাজনক।

চলচ্চিত্র নির্মাতা কামার আহমেদ সাইমন বলেন, এটি ফেব্রুয়ারি মাস। ভাষার মাস। সালাম, জব্বার, রফিক... তারপর কি আমরা মুশতাক লিখব? এটি আমার লিখতে ভয় হচ্ছে। কারো প্রতি আমার কোনো অভিযোগ নেই। আমি শুধু বুঝতে পারি না এই স্বাধীনতার মানে কী?

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ইউনিয়নে সদ্য বহিষ্কৃত সহকারী সাধারণ সম্পাদক মেঘমল্লার বসুর সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিলের কেন্দ্রীয় সভাপতি আরিফ মহিউদ্দিন, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি ইকবাল কবির, রাষ্ট্রচিন্তার সদস্য হাসনাত কাইয়ুম প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ২২৫০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১
ডিএন/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa