ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৮ জানুয়ারি ২০২২, ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

রাজনীতি

দুই নেত্রীকে এক টেবিলে বসানোর জনমত গঠন শুরু নাজমুল হুদার

মান্নান মারুফ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১০
দুই নেত্রীকে এক টেবিলে বসানোর জনমত গঠন শুরু নাজমুল হুদার

ঢাকা: জাতীয় স্বার্থে দেশের শীর্ষ দুই নেত্রীকে একত্রে বসানোর জন্য জনমত গঠন শুরু করে দিয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা।

মঙ্গলবার বাংলানিউজে এ বিষয়ক রিপোর্ট প্রকাশের পর বুধবার স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল এটিএন নিউজে প্রচারিত এক বিশেষ সাক্ষাতকারে তিনি এ বিষয়ে তার পরিকল্পনা প্রকাশ ধরেন।



তিনি জানান, দুই নেত্রীকে এক টেবিলে বসানোর পক্ষে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে জনমত গঠন ও সচেতনতা তৈরি করতে বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা প্রচার চালাবে। এরই মধ্যে সংস্থাটির পক্ষ থেকে এ বিষয়ক প্রচারপত্র বিতরণ শুরু হয়েছে।

তিনি আরও জানান, দুই নেত্রীকে এক টেবিলে বসানোর জনমত গঠনের জন্য জেলা ও বিভাগীয় শহরগুলোতে র‌্যালি, মানববন্ধন, কর্মশালা ইত্যাদি কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে। ঢাকায় আয়োজন করা হবে গ্র্যান্ড র‌্যালি।

ঢাকার র‌্যালিতে দুই নেত্রীর মধ্যে মধ্যস্থতা করবেন এমন তিন গ্রহণযোগ্য ব্যক্তির নাম প্রকাশ করা হবে বলেও জানান সাবেক যোগাযোগ মন্ত্রী নাজমুল হুদা।

তিনি মনে করেন, দুই নেত্রী একত্রে বসলেই কেবল তাদের উদ্যোগ সফল হবে। আর তা না হলে যদি জনগণ দুই নেত্রীকে আর শীর্ষ পদে দেখতে না চায় তাহলেই কেবল মাইনাস টু ফর্মুলার প্রয়োগ করা যাবে।

প্রাথমিক উদ্যোগ হিসেবে প্রবাসী বাঙালিদের ভেতর এ বিষয়ে জনমত তৈরি করতে চান তিনি। এজন্য সপ্তাহ তিনেকের সফরে বিদেশ গিয়েছেন।

স্ত্রী সিগমা হুদাসহ মঙ্গলবার রাত পৌনে ১২টায় সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের একটি ফাইটে তিনি সিঙ্গাপুর যান।

যাওয়ার আগে বাংলানিউজকে ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা বলেন, ‘সিঙ্গাপুর যাচ্ছি। সেখানে আমার ও আমার স্ত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাবো। ’

তবে নাজমুল হুদার এক ঘনিষ্টজন বাংলানিউজকে জানান, এ সফরে নামজুল হুদা আসলে দুই নেত্রীকে একত্রে বসানোর পক্ষে প্রবাসী বাঙালিদের মধ্যে জনমত তৈরির চেষ্টা করবেন।

১৬ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু করে দু’তিন দিন সিঙ্গাপুর প্রবাসী বাঙালিদের সঙ্গেও মতবিনিময় করবেন তিনি। এসব মতবিনিময় অনুষ্ঠানে দুই নেত্রীকে একসঙ্গে বসানোর আলোচনাই প্রাধান্য পাবে।

২০ সেপ্টেম্বর সিঙ্গাপুর থেকে জেদ্দা যাবেন তিনি। জেদ্দায় কয়েক ঘণ্টা বিরতির পর সৌদি এয়ারলাইন্সের ফাইটে যাবেন নিউইয়র্ক। এরপর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আরও কয়েকটি অঙ্গরাজ্যও সফর করার কথা রয়েছে তার। সব শহরেই তিনি প্রবাসী বাঙালিদের সঙ্গে দুই নেত্রীকে একত্রে বসানোর প্রাসঙ্গিকতা নিয়ে মতবিনিময় করবেন।

আগামী ৭ অক্টোবর সৌদি এয়ারলাইন্সে জেদ্দা হয়ে দেশে ফিরবেন তিনি।

বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক ওয়ালিউল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, সংগঠনটির ৩৫০টি শাখা ও তাদের সদস্যরা এরই মধ্যে দুই নেত্রীকে একত্রে বসানোর প্রচার শুরু করেছেন। প্রতিটি শাখাতেই আছেন অন্তত ৫০ জন আইনজীবী, সাংবাদিক, শিক্ষক ও স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যক্তি।

অক্টোবরের দ্বিতীয়ার্ধে মতবিনিময় সভা শুরু হবে বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa