ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ কার্তিক ১৪২৭, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

রাজনীতি

জিয়ার বিরুদ্ধে অপপ্রচারে জনগণ বিভ্রান্ত হবে না: রিজভী

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২২৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০
জিয়ার বিরুদ্ধে অপপ্রচারে জনগণ বিভ্রান্ত হবে না: রিজভী রুহুল কবির রিজভী

ঢাকা: বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সরকারের লেলিয়ে দেওয়া সাংস্কৃতিক ব্যক্তিরা পৃষ্ঠপোষকতা পেয়ে মহা উৎসাহে জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে জঘন্যতম বিকৃত ইতিহাস, চরিত্রহনন ও কুৎসার গরল উগরে দিতে মেতে উঠেছে।

শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

রিজভী বলেন, সাংস্কৃতিক অঙ্গনের কতিপয় পদলেহী অর্বাচীন ইতিহাস বিকৃত করার প্রক্রিয়ায় জিয়াউর রহমানকে খাটো করার অপচেষ্টায় নিরন্তর কাজ করছেন। মান্নান হীরা নামে এক ব্যক্তি আওয়ামী লীগের নেকনজর পাওয়ার জন্য ইনডেমনটি নামে তথাকথিত বিকৃত ইতিহাসের চটি নাটক লিখে জয় বাংলা ব্যানারে বা তাদের সাংস্কৃতিক জোটের নামে সারাদেশে মঞ্চায়ন করে বেড়াচ্ছেন গত এক বছর যাবত।

তিনি বলেন, কথিত পথ নাটকটি ২৬ সেপ্টেম্বর নিশিরাতের এক সংসদ সদস্যের মালিকানাধীন টিভিতে প্রচার করা হবে বলে আমরা জানতে পেরেছি। আমরা তাদের সাবধান করে দিতে চাই, এই ইতিহাস বিকৃতি ও তথ্যসন্ত্রাসমূলক নাটক প্রচারের অপচেষ্টা চালিয়ে গণশত্রু হবেন না। এই নাটকের রচয়িতা, পরিচালক, নির্দেশক, অভিনেতা-কলাকুশলীদের জনগণ মনে রাখবে।

রিজভী বলেন, একজন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে অপমান করা মানেই রণাঙ্গনের সকল মুক্তিযোদ্ধাকেই অপমান করা। এই দিনই দিন না, সামনে আরো দিন আছে। দেশের জনগণই এর উপযুক্ত জবাব দেবে। বিকারগ্রস্ত মানসিকতার এই ‘ইনডেমনিটি’র নামে চরিত্রহননকারী নাটকের নির্মাতাদের এহেন কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাচ্ছি। এটির সাথে যারা জড়িত কিংবা প্রচার করবেন জনগণ তাদের ক্ষমা করবে না।

রিজভী আরও বলেন, নাটকের সাথে জড়িত ও নেপথ্যের কুশীলবদের স্মরণ করিয়ে দিতে চাই, প্রধান নির্বাচন কমিশনারের স্বীকার করা মধ্যরাতের নির্বাচনে ক্ষমতায় চেপে বসা এই সরকার কখনোই সুষ্ঠু রাজনীতি ও গণতন্ত্রকে বিশ্বাস করে না। সীমাহীন লুটতরাজ, খুন-গুম, ক্রসফায়ারসহ নৈরাজ্য আর ব্যাপক রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের দ্বারা দেশকে নরকে পরিণত করেছে সাড়ে বারো বছর। এসব নিয়ে আপনারা নীরব কেন? এসব নিয়ে আপনাদের নাটক কোথায়?

তিনি বলেন, জাতীয় সংসদের নওগাঁ-৬ আসনের উপ-নির্বাচনে বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) ধানের শীষের প্রার্থীর প্রস্তুতি সভায় হামলা চালিয়ে আত্রাই থানা বিএনপির আহ্বায়ক মোশাররফ এবং যুগ্ম আহ্বায়ক জাপানসহ অনেক নেতাকর্মীকে আহত করা হয়েছে। আমি এই হামলার সাথে জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি করছি।

এছাড়া পাবনা-৪ উপ-নির্বাচনেও ধানের শীষের প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের হুমকি-ধমকি দিতে শুরু করেছে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বাহিনী। আসন্ন উপ-নির্বাচনগুলোতে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের আলামত দেখা যাচ্ছে। তবে সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন করতে যতই বাধা দেওয়া হোক সংশ্লিষ্ট এলাকার জনগণ তা প্রতিরোধ করবে, বলেন রুহুল কবির রিজভী।

বাংলাদেশ সময়: ১২২৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০
এমএইচ/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa