bangla news

করোনা: গরিব মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান ১৪ দলের

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৩-২৭ ১০:০০:১৭ পিএম
১৪ দলের লোগো

১৪ দলের লোগো

ঢাকা: বিত্তবান, জনপ্রতিনিধিসহ সমাজের বিত্তবানদের সাধ্য অনুযায়ী শ্রমজীবী, গরিব-দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দল।

শুক্রবার (২৭ মার্চ) ১৪ দলের পক্ষ থেকে দেওয়া এক যৌথ বিবৃতিতে এ আহ্বান জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী সরকার যথাসাধ্য চেষ্টা করছে। কিন্তু সরকারের একার পক্ষে সব কিছু করা সম্ভব না। তাই আসুন সবাই দৈনিক উপার্জনের উপর নির্ভরশীল দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়ান। শেখ হাসিনার নির্দেশনা মেনে সবাই মানবতার সেবায় ঝাপিয়ে পড়ুন। 

১৪ দলের এ যৌথ বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের সমন্বয়ক মোহাম্মদ নাসিম, ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, জাতীয় পার্টির (জেপি) সাধারণ সম্পাদক শেখ শহীদুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারী, বাংলাদেশ জাসদের সভাপতি শরীফ নুরুল আম্বিয়া, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের সভাপতি ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম খান, ন্যাপের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন, গণআজাদী লীগের সভাপতি এস কে শিকদার ও বাসদের রেজাউর রশীদ খান।

বিবৃতিতে বলা হয়, গত ২৫ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির উদ্দেশে দিক-নির্দেশনামূলক ভাষণ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর এই ভাষণ মহাবিপর্যয়ের সম্মুখীন জাতিকে সাহস ও আত্মবিশ্বাস যোগাবে। করোনা প্রতিরোধে দেশে কার্যত এখন লকডাউন চলছে। করোনা থেকে বাঁচতে সব মানুষই এখন ঘরে বন্দি হয়ে আছে। যাদের আর্থিক সঙ্গতি আছে তারাই সাময়িকভাবে দুর্যোগ কাটিয়ে উঠতে পারছে এবং পারবে। 

‘কিন্তু যারা শ্রমজীবী মানুষ, যাদের দিনের আয়ের ওপর নিজ পরিবারের খাবার যোগাড় করতে হয়, তাদের সামনে এখন খুবই দুঃসময়। আমরা মনে করি আওয়ামী লীগসহ ১৪ দলের সব নেতাকর্মীদের যার যার সাধ্য অনুযায়ী এই শ্রমজীবীদের পাশে দাঁড়াতে হবে। এসব মানুষের পাশে দাঁড়ানোই এখন আমাদের প্রধান কর্তব্য।’

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, রাজনৈতিক কর্মীদের পাশাপাশি যারা বিত্তবান, যাদের সামর্থ্য আছে এমন বিভিন্ন পেশার মানুষ যদি শক্তি-সামর্থ্য অনুযায়ী প্রত্যেকের নিজের গ্রাম বা শহরের আশপাশের গরিব-দুঃখী ও শ্রমজীবী মানুষের পাশে এভাবে দাঁড়াতে পারি, তাহলে এর চেয়ে বড় কাজ আর কিছু হতে পারে না।

জনপ্রতিনিধিসহ (সংসদ সদস্য, পৌরসভার মেয়র, উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও কাউন্সিলরসহ সব জনপ্রতিনিধি) ১৪ দলের নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, এই মুহূর্তে নেমে পড়ুন। এই শ্রমজীবী মানুষদের বাঁচাতে আর কোনো বিলম্ব বা কালক্ষেপণ করা যাবে না।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৮ ঘণ্টা, মার্চ ২৭, ২০২০
এসকে/এএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2020-03-27 22:00:17