ঢাকা, শনিবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৫ মে ২০২৪, ১৬ জিলকদ ১৪৪৫

অফবিট

বাড়ির নালায় কুমির!

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫১৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৭, ২০১৭
বাড়ির নালায় কুমির!

ঢাকা: টালি ছাওয়া একতলা বাড়িটির সামনে রাস্তার পাশে নালার (ড্রেন) কয়েক ফুট অংশ উন্মুক্তই রাখা। সেই উন্মুক্ত অংশেই হঠাৎ দেখা দিলো এক আস্ত কুমিরের বাচ্চা।

গৃহকর্তী অন্যদের ডেকে এনে কিন্তু কুমিরটিকে আর দেখতে পেলেন না। নালার আচ্ছাদিত অংশে লুকিয়ে পড়েছে আনুমানিক দেড় মিটার লম্বা বাচ্চা কুমিরটি।

পরদিন বিকেলে বাড়ির বাচ্চারা খেলতে গিয়ে ফের দেখতে পেলো বাচ্চা কুমিরটিকে।   এ দফায়ও খুব দ্রুতই লুকিয়ে পড়লো বোর্নিও দ্বীপের কুমির।

খবর দেওয়া হলো সিভিল ডিফেন্স ফোর্সকে। একটি দল এসে শুরু করলো কুমিরের ছানা খোঁজা। কিন্তু আচ্ছাদিত ড্রেনে সেটিকে খুঁজে পাওয়া কি আর চাট্টিখানি কথা!

সিভিল ডিফেন্স টিমের ধারণা, আশপাশের কোনো পুকুর থেকে নিষ্কাষণ নালা বেয়েই  হয়তো এতো দূর এসে থাকবে কুমির ছানা। দক্ষিণ চীণ সাগর পাড়ে মিরি শহরের ওই অংশটাতে যে কুমিরের আনাগোনা একটু বেশিই।

মালয়েশিয়ান বোর্নিওর সারাওয়াক প্রদেশের উত্তরের এই মিরি শহরেই আবিস্কার হয় মালয়েশিয়ার প্রথম তেলকূপ। শহরটা ব্রুনাইয়ের খুব কাছে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জাপানি সেনারা বোর্নিও দ্বীপে ধ্বংসযজ্ঞ শুরু করে এই বোর্নিও থেকেই। কুখ্যাত হেড হান্টারস ট্রেইল, বিস্ময়কর বাদুরগুহা আর বিশ্বের সর্ববৃহৎ আন্ডারগ্রাউন্ড গুহাতেও যে এই মিরি হয়েই যেতে হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২১১০ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৭, ২০১৭
জেডএম/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।