ঢাকা, রবিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জেলা পরিষদ সদস্য নির্বাচিত হলেন শেরপুরের মুন্নী

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২২
বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জেলা পরিষদ সদস্য নির্বাচিত হলেন শেরপুরের মুন্নী

শেরপুর: শেরপুরে জেলা পরিষদ নির্বাচনে একক প্রার্থীতা থাকায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সংরক্ষিত সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন জেলা পরিষদের সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ফারহানা পারভীন মুন্নী।

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় জেলা সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ শানিয়াজ্জামান তালুকদার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, জেলা পরিষদ নির্বাচনের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১ নম্বর ওয়ার্ডে অ্যাডভোকেট ফারহানা পারভীন মুন্নীসহ মোট চারজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এর মধ্যে মনোনয়নপত্র বাছাইকালে আঞ্জুমান আলম লিপির মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। আর নিলুফা পান্না মিনা ও কোহিনূর বেগম রোববার বিকেলে নিজেদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। ফলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সদস্য পদে বিজয়ী হন অ্যাডভোকেট ফারহানা পারভীন মুন্নী।

এর আগেও ফারহানা পারভীন জেলা পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। পরে তাকে জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মনোনীত করা হয়। তিনি শেরপুর শহরের খরমপুর মহল্লার অধিবাসী প্রয়াত প্রতিষ্ঠাতা আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট নুর মোহাম্মদের নাতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহম্মেদের মেয়ে। তিনি জেলা যুব মহিলা লীগের আহবায়কের দায়িত্বে রয়েছেন। এছাড়া তিনি শেরপুর প্রেসক্লাবের সদস্য, গাজী টিভি ও দৈনিক ভোরের কাগজের শেরপুর জেলা প্রতিনিধি এবং জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক।

এছাড়া বিআরডিবিসহ বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সঙ্গেও জড়িত তিনি। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি এক সন্তানের জননী এবং তার ছেলে মাশুকুর রহমান ফাহিম জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ নেতা।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২২
এফআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa