ঢাকা, মঙ্গলবার, ১২ আশ্বিন ১৪২৯, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

সুইস ব্যাংকে জমা অর্থের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো ব্যক্তির তথ্য চায়নি বাংলাদেশ

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৫৩ ঘণ্টা, আগস্ট ১০, ২০২২
সুইস ব্যাংকে জমা অর্থের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো ব্যক্তির তথ্য চায়নি বাংলাদেশ কথা বলছেন ঢাকায় নিযুক্ত সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত নাথালি শুয়ার্ড। ছবি: ডিএইচ বাদল

ঢাকা: সুইস ব্যাংকে জমা রাখা অর্থের বিষয়ে বাংলাদেশ সরকার সুনির্দিষ্ট কোনো ব্যক্তির তথ্য চায়নি বলে জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত নাথালি শুয়ার্ড।

বুধবার (১০ আগস্ট) জাতীয় প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানে সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত এ কথা বলেন।

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (ডিকাব) ‘ডিকাব টক’ নামে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

এক প্রশ্নের উত্তরে সুইস রাষ্ট্রদূত বলেন, সুইস ব্যাংকে জমা রাখা অর্থের বিষয়ে বাংলাদেশ সরকার সুনির্দিষ্ট কোনো ব্যক্তির জন্য তথ্য চায়নি। সুইস ব্যাংকের ত্রুটি সংশোধনে সুইজারল্যান্ড কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। তবে আমি আপনাদের জানাতে চাই, সুইজারল্যাণ্ডে কালো টাকা রাখার কোনো নিরাপদ ক্ষেত্র নয়।

সুইস রাষ্ট্রদূত বলেন, গত বছর সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন ব্যাংকে বাংলাদেশ থেকে প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা জমা হয়েছে। তবে উভয় দেশের সম্মতিতে ব্যাংকিং তথ্য লেনদেন হতে পারে। এবং সেটা সম্ভবও। এটা নিয়ে আমরা কাজ করছি।

বাংলাদেশে সুইস বাণিজ্য ও বিনিয়োগের সম্ভাবনার বিষয়ে তিনি বলেন, দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ অনেক বেড়েছে। এখন দু’দেশের মধ্যে বাণিজ্যের পরিমাণ প্রায় ১শ কোটি ডলার। বাংলাদেশে অনেক সুইস প্রতিষ্ঠান বাণিজ্য ও বিনিয়োগ করেছে। আগামীতে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে আমরা কাজ করছি।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে রাষ্ট্রদূত বলেন, রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে সুইজারল্যান্ড কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ও আশ্রয়দাতা সম্প্রদায়কে সুইজারল্যান্ড মানবিক সহায়তা দিচ্ছে। আমরা এই সঙ্কটের সমাধান চাই।  

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ডিকাব প্রেসিডেন্ট রেজাউল করিম লোটাস ও সাধারণ সম্পাদক একেএম মঈনুদ্দিন।

বাংলাদেশ সময়: ১২৪৫ ঘণ্টা, আগস্ট ১০, ২০২২/আপডেট: ১৫৫০ ঘণ্টা
টিআর/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa