ঢাকা, বুধবার, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

ভূরিভোজ হলেও হলো না বিয়ে!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫৩ ঘণ্টা, আগস্ট ৮, ২০২২
ভূরিভোজ হলেও হলো না বিয়ে! প্রতীকী ছবি।

ফরিদপুর:  ফরিদপুর সদরের কানাইপুর ইউনিয়নের একটি গ্রামের এক কিশোরীর বিয়ে হওয়ার কথা ছিল সোমবার ( ৮ আগস্ট)। বরপাশের রাজবাড়ীর সুলতানপুর ইউনিয়নের একটি গ্রামের ২৯ বছর বয়সী এক তরুণ।

দুপুরে ওই কিশোরীর বাড়িতে বিয়ে উপলক্ষে রান্না করা হয়। বরযাত্রীরাও চলে এসেছিল। তবে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বন্ধ হয়ে যায় এই বাল্যবিবাহ। বিয়ের আয়োজন বন্ধ করে দেওয়ায় অতিথিদের খাইয়ে বিদায় করে দেওয়া হয়।  

জানা গেছে, ওই তরুণী একটি বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী। তার বিয়ের খবর পেয়ে ফরিদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লিটন ঢালী এ বাল্যবিবাহের আয়োজন বন্ধ করে দেন। তথ্য দিয়ে আদালতকে সহায়তা করে নারী সংগঠন নন্দিতা সুরক্ষা।

নারী সংগঠন নন্দিতা সুরক্ষার পক্ষ থেকে জানানো হয়, বাল্যবিবাহসহ কিশোরী ও নারী নির্যাতন দমনের জন্য তাদের একটি হেল্প লাইন আছে। ওই হেল্প লাইনে কিশোরীটি যে বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন তার সহপাঠীরা এ বাল্য বিবাহ আয়োজনের ব্যাপারে তথ্য দিলে বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানানো হয়।

এ বিষয়ে ফরিদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লিটন ঢালী বলেন, স্থানীয় ইউপি সদস্যের সহায়তায় এ বাল্যবিবাহের আয়োজন বন্ধ করে দেওয়া হয়। পাশাপাশি কিশোরীর বয়স ১৮ না হওয়া পর্যন্ত এ বিবাহের আয়োজন করা হবে না মর্মে কিশোরীর অভিভাবকের কাছ থেকে মুচলেকা নেওয়া হয়। এ বিষয়টি নজরদারিতে রাখার জন্য ইউপি চেয়ারম্যান বেলায়েত ফকিরকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫১ ঘণ্টা, আগস্ট ০৮, ২০২২
ইআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa