ঢাকা, রবিবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৪ আগস্ট ২০২২, ১৫ মহররম ১৪৪৪

জাতীয়

সালিসে বিপক্ষে রায় দেওয়ায় যুবলীগ নেতা পারভেজকে হত্যা!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, ময়মনসিংহ | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬০০ ঘণ্টা, জুলাই ২, ২০২২
সালিসে বিপক্ষে রায় দেওয়ায় যুবলীগ নেতা পারভেজকে হত্যা!

ময়মনসিংহ : একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে সালিস ডাকা ও সেখানে বিপক্ষে রায় দেওয়ায় হত্যাকাণ্ডের শিকার হন ময়মনসিংহ মহানগরীর ২৯ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি পারভেজ (৩০)। হত্যাকাণ্ডটি ঘটান স্থানীয় যুবক দিলিপ ও তার সহযোগীরা।

তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসতে কাজ করছে পুলিশ।

কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ কামাল আকন্দ শনিবার (২ জুলাই) এসব তথ্য জানান। দুপুরে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি আরও জানান, হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

ওসি জানান, গত পরশু (বৃহস্পতিবার) কোনো একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয়দের সঙ্গে বিরোধ বাধে দিলিপ ও তার সহযোগীদের মধ্যে। পরে বিষয়টি সমাধানের জন্য সামাজিকভাবে সালিস করেন যুবলীগ নেতা পারভেজ। ঘটনাটি কী ছিল, সে ব্যাপারে কিছু জানাতে না পারলেও ওসি বলেন, ধারণা করা হচ্ছে কোনো বে-ফাঁস মন্তব্য নিয়ে স্থানীয়দের সঙ্গে ঝামেলা পাকিয়েছিলেন দিলিপ।

যুবলীগ নেতা পারভেজ মহানগরীর সাবেক ২ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি ছিলেন। মৃত্যুর আগে তিনি ২৯ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি প্রার্থী হন।

ওসি কামাল আকন্দ বলেন, ওই সালিসের রায় দিলিপ ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে যায়। এতে তারা ক্ষুব্ধ হয়। শুক্রবার (১ জুলাই) রাত সাড়ে ৮টার দিকে বাড়ি ফেরার সময় দিলিপ ও তার সহযোগীরা পারভেজকে আটকায়। তাকে ছুরিকাঘাত ও কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনার পর আহত অবস্থায় পারভেজকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। রাত সাড়ে ৯টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এ যুবলীগ নেতার মৃত্যু হয়।

কোতোয়ালি মডেল থানার এ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আরও জানান, হত্যাকাণ্ডের ঘটনার পর থেকে জড়িতরা পলাতক। তাদের আইনের আওতায় আনতে অভিযান চলছে। একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। দ্রুতই খুনিরা ধরা পড়বে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।

পারভেজের সাংগঠনিক পরিচয় নিশ্চিত করে মহানগর যুবলীগের আহবায়ক মো. শাহীনুর রহমান বলেন, আমি এ হত্যাকাণ্ডের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

যুবলীগের এ নেতার খুনের ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. ইকরামুল হক টিটুসহ দলীয় ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরাও হত্যাকারীদের শাস্তি দাবি করেছেন।

সিটি মেয়র ইকরামুল হক টিটু ফেসবুকে লিখেছেন, যেখানেই রাজনৈতিক কর্মসূচি, সেখানেই পারভেজের সরব উপস্থিতি। নিষ্ঠুরতার কাছে হার মানতে হয়েছে যুবলীগের সক্রিয় এই ভাইটিকে। এ মৃত্যু মেনে নেওয়া কষ্টকর। তার বিদেহী আত্মার শান্তি এবং অপরাধীদের আইন অনুযায়ী দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৮ ঘণ্টা, ২ জুলাই, ২০২২
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa