ঢাকা, সোমবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

অজ্ঞান করার ইনজেকশন দিতেই মারা গেলেন অন্তঃসত্ত্বা!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৪৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৬, ২০২১
অজ্ঞান করার ইনজেকশন দিতেই মারা গেলেন অন্তঃসত্ত্বা!

সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জে অপারেশনের আগে অজ্ঞান করার  ইনজেকশন দিতেই নিলুফা ইয়াসমিন (২৫) নামে এক অন্তঃসত্ত্বার মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় তার স্বজনরা হাসপাতাল ভাঙচুর ও ম্যানেজারকে মারধর করেছে।

 

ঘটনার পর থেকে হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স ও কর্মচারীরা পলাতক রয়েছেন।  

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) রাতে পৌর এলাকার এম এ মতিন সড়কের মঈনুদ্দিন মেমোরিয়াল হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।  

মৃত নিলুফা ইয়াসমিন রংপুর জেলার গঙ্গাচড়া থানার চরখালি শেরপুর গ্রামের রুবেল হোসাইনের স্ত্রী ও তাড়াশ উপজেলার মাধাইনগর ইউনিয়নের উত্তর মথুরাপুর গ্রামের শামছুল আলমের মেয়ে।  

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঈনুদ্দিন মেমোরিয়াল হাসপাতালে ওই রোগীর মৃত্যু হওয়ার পর পরই স্বজনেরা হাসপাতাল ভাঙচুর করে। এ সময় হাসপাতালের পরিচালক ডা. আব্দুল আজিজ সরকারের ছোট ভাই আব্দুর রাজ্জাককে মারধর করা হয়।  

নিহতের ভাই আল-আমিন হোসেনসহ পরিবারের লোকজন অভিযোগ করে বলেন, নিলুফাকে দুপুর ১টার দিকে হাসপাতালে আনা হয়। সন্ধ্যার দিকে তাকে সিজার করার জন্য অপারেশন টেবিলে নিয়ে যায়। এ সময় ডা. সজীব অজ্ঞান করার ইনজেকশন দেন। এর কিছুক্ষণ পরে অপারেশন করার আগেই মারা যান নিলুফা।

সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাইফুল ইসলাম জানান, সন্ধ্যা ৬টার দিকে নিলুফাকে অপারেশনের জন্য ওটিতে নেওয়া হয়। অপারেশন শুরুর আগেই তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় রোগীর স্বজনার হাসপাতালে ভাঙচুর শুরু করে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে।  

বাংলাদেশ সময়: ২১৪৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৬, ২০২১
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa