ঢাকা, সোমবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ২৩ রবিউস সানি ১৪৪৩

জাতীয়

পাত্র দেখে ফেরার পথে গণধর্ষণের শিকার

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪১৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৭, ২০২১
পাত্র দেখে ফেরার পথে গণধর্ষণের শিকার প্রতীকী ছবি

শ্রীপুর (গাজীপুর): ভাগ্নির জন্য বিয়ের পাত্র দেখে ফেরার পথে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক নারী। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় দু’জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

 

গত শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) রাতে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় গণধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে।  

শনিবার (১৬ অক্টোবর) সকালে শ্রীপুর থানায় তিন জনকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগী নারী। ওই মামলায় গ্রেফতার হয়েছে অভিযুক্ত দু’জন।

গ্রেফতাররা হলেন- শ্রীপুরের শিমুলতলী গ্রামের মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে কামরুজ্জামান (৪০) ও ধামলাই গ্রামের আবুল কালামের ছেলে মো. গোলাপ (৩৩)। মামলায় অজ্ঞাতপরিচয় আরেক জনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, ভিকটিম ও তার বান্ধবী ময়মনসিংহের ত্রিশাল এলাকায় একটি বিউটি পার্লারে কাজ করেন। ভিকটিমের সঙ্গে গাজীপুরের শ্রীপুরে মোস্তফা নামে এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত ১৫ অক্টোবর সন্ধ্যার দিকে ভিকটিমের ভাগ্নির বিয়ের পাত্র দেখার জন্য ওই বান্ধবীকে সঙ্গে নিয়ে প্রেমিকসহ তিনি ত্রিশাল থেকে শ্রীপুরে কাওরাইদ এলাকার বেলদিয়া গ্রামে আসেন। সেখানকার আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে রাত ১০টার দিকে কাওরাইদ বাজার থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় ত্রিশালের উদ্দেশে রওনা দেন।  

তাদের বহনকারী অটোরিকশাটি জৈনাবাজার-কাওরাইদ সড়কের বলদীঘাট বাজার এলাকায় এলে অভিযুক্তরা তাদের গতিরোধ করে বদলীঘাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নির্মাণাধীন ভবনের একটি কক্ষে নিয়ে যায়। সে সময় তারা ভিকটিমের বান্ধবীকে বাইরে আটকে রাখে। পরে কক্ষে নিয়ে অভিযুক্তরা ওই নারীকে গণধর্ষণ করে। একপর্যায়ে টের পেয়ে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে অভিযুক্তরা ভিকটিমদের সিএনজি স্ট্যান্ডের দিকে পাঠিয়ে দেয়। সে সময় বাজারে উপস্থিত শ্রীপুর থানার টহল পুলিশকে বিস্তারিত জানালে ঘটনাস্থল থেকে কামরুজ্জামান ও গোলাপ নামে ওই দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৪০৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৭, ২০২১
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa