ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

কুয়াকাটায় গৃহবধূর মরদেহ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১০৭ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৭, ২০২১
কুয়াকাটায় গৃহবধূর মরদেহ

পটুয়াখালী: পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় বুশরা (২০) নামের এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে মহিপুর থানা পুলিশ।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) সকালে এ বিষয়ে নিশ্চিত করেন মহিপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মনোয়ার হোসেন।

তিনি বলেন, শনিবার রাতে বুশরা নামে এক নারীর মরদেহ শশুর বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়।

বুশরা উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের খলিলপুর গ্রামের আ. সোবহান শরীফের মেয়ে এবং কুয়াকাটা পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড খাজুরা এলাকার ইয়াকুব খন্দকারের স্ত্রী।

২০১৮ সালের শেষের দিকে বুশরার বিয়ে হয়। এরপর থেকেই তার সঙ্গে স্বামী ইয়াকুবের প্রায়ই ঝগড়া হতো। প্রায় সময়ই তাকে মারধর করতো তার স্বামী।
জান গেছে, শনিবার বিকেলে বুশরাকে মারধর করে তার শশুর বাড়ির লোকজন। এ কথা বুশরা তার বাবাকে জানালে তার বাবা বুশরাকে বাড়িতে আনার জন্য গেলে জামাই মেয়েকে না দিয়ে উল্টো গালাগালি করে শ্বশুরকে তাড়িয়ে দেয়।

এবং সন্ধ্যার পরে (স্বামী) ইয়াকুব ফোন করে চাচাকে জানায়, আপনার ভাতিজিকে আমি রাগ হয়ে লাঠি দিয়ে কয়েকটা আঘাত করেছি তাতেই ও (বুশরা) গলার দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

বুশরার শাশুড়ি বলেন, আমি অজু করে বাইরে গিয়েছিলাম। এসে দেখি ঘরের দরজা জানালা সব বন্ধ। পরে আমার নাতি সুমাইয়ার সহায়তায় জানালা ভেঙে দেখি বুশরা সিলিংয়ের সঙ্গে ঝুলে আছে। পরে রশি কেটে দিয়ে নিচে নামিয়ে লোকজন ডাক দেই।

মহিপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মনোয়ার হোসেন বলেন, গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পটুয়াখালী হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার স্বামী ইয়াকুবকে পুলিশের হেফাজতে রেখেছি। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

বাংলাদেশ সময়: ১১০৭ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৭, ২০২১
এনএইচআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa