ঢাকা, শনিবার, ৭ কার্তিক ১৪২৮, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

সিলেটে স্ত্রীর মরদেহ হাসপাতালে রেখে স্বামী উধাও!

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৪৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১
সিলেটে স্ত্রীর মরদেহ হাসপাতালে রেখে স্বামী উধাও!

সিলেট: সিলেটে হাসপাতালে স্ত্রীর মরদেহ রেখে উধাও হয়েছেন স্বামী। নিহত রুমী বেগম (২১) সিলেটের দক্ষিণ সুরমার মোগলাবাজার ইউনিয়নের তিরাশি গাঁওয়ের খোকন মিয়ার স্ত্রী।

  
 
বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় পুলিশকে না জানিয়েই বসতঘর থেকে ওড়না পেঁচানো রুমির নিথর দেহ উদ্ধার করে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
 
এরপর স্ত্রীর মরদেহ হাসপাতালে রেখে উধাও হয়ে যান স্বামী খোকন মিয়া। তিনি ওই গ্রামের লাল মিয়ার ছেলে।
 
রুমীর ভাই জুনেদ আহমদ বলেন, বিয়ের পর কিছুদিন ভাল চললেও সম্প্রতি রুমির ওপর স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন বিভিন্ন ইস্যুতে নির্যাতন করে আসছিলেন। এসব জেনেও তারা চুপ ছিলেন। বুধবার সকালে মাকে ফোন করে কান্নাভেজা কণ্ঠে তার বোন বলেন, ‘আমাকে বাড়িতে নিয়ে যাও, ওরা মেরে ফেলবে। ’ এরপর সন্ধ্যায় খোকন ফোন করে জানায় রুমী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তারা তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছে। তার বোনকে হত্যা করা হয়েছে দাবি করে জড়িতদের শাস্তি দাবি করেন জুনেদ আহমদ।
 
এ ব্যাপারে এসএমপির মোগলাবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শামসুদ্দোহা বাংলানিউজকে বলেন, রাত ১০টার দিকে মরদেহ দেখতে তিনি হাসপাতালে যান। সুরতহাল প্রতিবেদনে আত্মহত্যা ধারণা করা হলেও হাতে ছিলা রকমের দু’টি আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। মৃত্যুর ঘটনায় গৃহবধূর বাবারবাড়ি ও শ্বশুরবাড়ির দুই রকম বক্তব্য পাওয়া গেছে। যে কারণে বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হবে এবং ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।   
 
তিনি আরও বলেন, রুমী বেগমের বাবারবাড়ি সিলেট সদরের খাদিমনগর ইউনিয়নের সাহেবের বাজার এলাকায়। প্রায় ‍দুই বছর আগে রুমি ও খোকনের বিয়ে হয়। তাদের ঔরসজাত এক বছরের একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে। স্বামী-স্ত্রী ও পরিবারের লোকজনের মধ্যে বনিবনাও ছিল না। এসব বিষয় সামনে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।  
 
বাংলাদেশ সময়: ০০৪৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১
এনইউ/আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa