ঢাকা, শনিবার, ৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯ সফর ১৪৪৩

জাতীয়

রাতভর শ্বাসকষ্টে ছটফট করেও কপালে জোটেনি অক্সিজেন!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮৪৮ ঘণ্টা, জুলাই ৩১, ২০২১
রাতভর শ্বাসকষ্টে ছটফট করেও কপালে জোটেনি অক্সিজেন!

হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জ ২৫০ শয্যা আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালে অক্সিজেনের সংকট দেখা দিয়েছে। প্রায় ১৫ ঘণ্টা শ্বাসকষ্টে ছটফট করতে থাকলেও একজন রোগীকে অক্সিজেন সরবরাহ করা সম্ভব হয়নি।

দুইদিন হাসপাতালে ভর্তি থেকে শুক্রবার (৩০ জুলাই) ওই রোগী মারা যান।

মৃত ব্যক্তির নাম অনুরুদ্ধ দাশ (৫৫)। তিনি লাখাই উপজেলার বুল্লা ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রামের মৃত অনীল দাশের ছেলে। শ্বাসকষ্টে ছটফট করে মারা গেলেও মৃত্যুর আগে তার করোনা পরীক্ষা করেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

অনুরুদ্ধ দাশের ছেলে অনুপম দাশ বাংলানিউজকে জানান, গত বুধবার (২৮ জুলাই) বিকেলে জ্বর ও শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত অবস্থায় তার বাবাকে হবিগঞ্জ ২৫০ শয্যা আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন। এ সময় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি দেন। তখন থেকে পরের দিন সকাল ৯টা পর্যন্ত শ্বাসকষ্টে ছটফট করতে থাকলেও তাকে অক্সিজেনের সাপোর্ট দেওয়া সম্ভব হয়নি। পরে বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তারা ব্যক্তিগতভাবে একটি অক্সিজেন সিলিন্ডার ভাড়া করে আনলে অনুরুদ্ধ দাশের শ্বাসকষ্ট অনেকটা কমে। কিন্তু একদিন মৃত্যুর সঙ্গে যুদ্ধ করে শুক্রবার (৩০ জুলাই) সকালে তিনি মারা গেছেন।  

মৃতের স্বজনরা জানান, কোভিড-১৯ পরীক্ষা না করেই অনুরুদ্ধ দাশকে করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে স্থানান্তর করা হয়। যা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। মৃত্যুর আগে পর্যন্ত তার করোনা পরীক্ষা হয়নি।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে হবিগঞ্জ ২৫০ শয্যা আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) মোমেন উদ্দিন বলেন, হাসপাতালে অক্সিজেন সিলিন্ডারের সংকট রয়েছে। রোগীদের সংখ্যা ও শ্বাসকষ্ট উভয়ই বেশি হওয়ায় অক্সিজেন সিলিন্ডার দেওয়ার দুই ঘণ্টার মধ্যেই শেষ হয়ে যায়। এজন্য সংকট আরও প্রকট আকার ধারণ করেছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৮৪৭ ঘণ্টা, জুলাই ৩১, ২০২১
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa