ঢাকা, শনিবার, ৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯ সফর ১৪৪৩

জাতীয়

ভারতে পাচার ১০ নারী-পুরুষ দেশে হস্তান্তর

উপজেলা করেসপন্ডেট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৪৯ ঘণ্টা, জুলাই ২৯, ২০২১
ভারতে পাচার ১০ নারী-পুরুষ দেশে হস্তান্তর ...

বেনাপোল (যশোর): বিভিন্ন সময় ভাল কাজের প্রলভনে পড়ে ভারতে পাচার হওয়া ১০ বাংলাদেশি নারী-পুরুষকে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে দেশে হস্তান্তর করেছে ভারত সরকার।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) বিকেলে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ তাদেরকে ট্রাভেল পারমিটে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

ফেরত আসা বাংলাদেশিদের মধ্যে ৮ জনকে রাইটস যশোর ও ২ জনকে জাস্টিস এন্ড কেয়ার নামে দুটি এনজিও সংস্থা পৃথক ভাবে গ্রহণ করেছে।

পাচার হওয়া নারী ও পুরুষেরা হলেন- সাজু চন্দ্র নাথ, খোকন, সাগর হাওলাদার, গোলাপ মিয়া, শাকিল, রাসেল ফকির, আয়েশা বেগম, রোকসনা বেগম, মাহমুদা আক্তার ও নয়ন হাওলাদার। তারা সবাই তিন থেকে চার বছর পর দেশে ফিরছেন। তাদের বাড়ি যশোর, নড়াইল, খাগড়াছড়ি ও বাগেরহাট জেলার বিভিন্ন এলাকায়।

জানা যায়, পাচার হওয়া সবাই দরিদ্র পরিবারের। তাদের ভালো কাজের কথা বলে ভারতে পাচার করে দালাল চক্র। পরে সেখানে জোর পূর্বক বিভিন্ন ঝুঁকিমুলক কাজে তাদের ব্যবহার করতো। এক পর্যায়ে এদের কেউ পালিয়ে পুলিশের হাতে ধরা দেয় আবার কাউকে পুলিশ পাচারকারীদের আস্তানা থেকে উদ্ধার করে। পরে অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে এদের আশ্রয় হয় ভারতের বেঙ্গালর সেন্টাল জেলে। সেখানে সাজার মেয়াদ শেষে দুই দেশের রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে আইনি প্রক্রিয়ায় ট্রাভেল পারমিটে এরা দেশে ফেরার সুযোগ পায়।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন ওসি আহসান হাবিব জানান, পাচারের শিকার যারা স্থলপথে ফেরত আসেন তাদের ইমিগ্রেশন কার্যক্রম শেষে পোর্টথানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়। পরে সেখান থেকে আইনি সহয়তা দিতে এনজিও সংস্থা গ্রহণ করেছে।

যশোর রাইটসের তথ্য ও অনুসন্ধ্যান কর্মকর্তা তৌফিকজ্জামান জানান, করোনা সংক্রমণ রোধে সরকারি নিয়ম মানতে ফেরত আসার পর এসব নারী, পুরুষদেরকে ১৪ দিনের জন্য শেল্টার হোমে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখা হবে। পরে তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এ সময় কেউ যদি পাচারকারীদের বিরুদ্ধে মামলা করতে চায় তাদের আইনি সহয়তা করা হবেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪৯ ঘণ্টা, জুলাই ২৯, ২০২১
কেএআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa