ঢাকা, শনিবার, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮, ৩১ জুলাই ২০২১, ২০ জিলহজ ১৪৪২

জাতীয়

কিশোর গ্যাং: ১ মাসে ১১ গ্রুপের ৬২ জন গ্রেফতার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩৭ ঘণ্টা, জুন ২১, ২০২১
কিশোর গ্যাং: ১ মাসে ১১ গ্রুপের ৬২ জন গ্রেফতার

ঢাকা: টিকটকের নামে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করে নানা অপরাধমূলক কাজ করে আসছিলেন কিশোর গ্যাং ‘ডন সাগর’ ও ‘মুন্না গ্রুপ’র সদস্যরা। শুধু তাই নয়, সংঘবদ্ধভাবে এলাকায় মাদকসেবন ও ইভটিজিং, ছিনতাই ও ডাকাতির মতো সব ধরনের অপরাধ ঘটাতেন ওই গ্রুপের সদস্যরা।



অভিযোগ ও গোপন তথ্যের ভিত্তিতে রাজধানীর হাজারীবাগ ও দারুসসালাম এলাকায় অভিযান চালিয়ে কিশোর গ্যাংয়ে ‘ডন সাগর’ ও ‘মুন্না গ্রুপ’ দুটির ১৬ সদস্যকে দেশীয় অস্ত্রসহ আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-২)।

আটক আসামিরা হলো-কিশোর গ্যাং ‘ডন সাগর’ গ্রুপের সদস্য- সাগর (১৩), সরফরাজ আহমেদ রিমন (১৭), রায়হান (১৭), পলাশ হোসেন (৩২), রাসেল (১৬), উজ্জল হোসেন (১৪), শাকিল হাওলাদার (১৮) ও মুরাদ হোসেন (২০)। অপর একটি গ্যাং ‘মুন্না গ্রুপের’ সদস্য মুন্না (১৫), মামুন খান (১৮), রিফাদ হোসেন (১৮), রায়হান (১৮), হাসান শেখ (১৯), হাসনাইন (১৯), নাসির উদ্দিন আলবানী (১৯), জয় চন্দ্র ঘোষ (১৯), অভিযানে তাদের কাছ থেকে ১১টি ছুরি, ১টি চাপাতি, ৩টি ফোল্ডিং চাকু, ১টি ক্ষুর জব্দ করা হয়।

গত এক মাসে কিশোর গ্যাংয়ের এই দুটি গ্রুপসহ তালিকাভুক্ত মোট ১১টি গ্রুপের মোট ৬২ জনকে গ্রেফতারের মাধ্যমে আইনের আওতায় আনা হয়েছে বলেও জানিয়েছে র‌্যাব-২।  

সোমবার (২১ জুন) দুপুরে র‌্যাব-২ এর অপারেশন অফিসার সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. ফজলুল হক বাংলানিউজকে বলেন, বিভিন্ন মাধ্যম থেকে তথ্য সংগ্রহ ও বিশ্লেষণ করে কিশোর গ্যাং গ্রুপের একটি তালিকা প্রস্তুত করা হয়। ওই তালিকা অনুযায়ী অভিযান চালিয়ে গত এক মাসে কিশোর গ্যাংয়ের ১১টি গ্রুপের মোট ৬২ জনকে গ্রেফতার করকে আমরা সক্ষম হয়। এরই ধারাবাহিকতায় রোববার দিনগত রাতে রাজধানীর হাজারীবাগ ও দারুসসালাম থানা এলাকায় পৃথক দুটি অভিযান চালিয়ে কিশোর গ্যাংয়ের ‘ডন সাগর’ ও ‘মুন্না গ্রুপ’র ১৬ সদস্যকে দেশীয় অস্ত্রসহ আটক করা হয়।

তিনি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক সদস্যরা নানা অপকর্মের বিষয়টি স্বীকার করেছে। আটককৃতরা জানায়, তারা বিভিন্ন দলে ভাগ হয়ে ডাকাতি, ছিনতাই, মাদকসেবন, ইভটিজিংসহ বিভিন্ন অপরাধে লিপ্ত রয়েছে। এছাড়াও টিকটকসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড (ছবি ও ভিডিও) করতেন। এছাড়াও আটক আসামিরা এলাকায় ভয়ভীতি ও নিজেদের আধিপত্য বিস্তার করতে অন্যগ্রুপের সঙ্গে মারামারি এবং এলাকার সাধারণ কিশোরদের মারধর কনতো বলেও স্বীকার করেছে।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, সমাজে এ ধরনের বিপথগামী কিশোর অপরাধীদের গ্রেফতারের মাধ্যমে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে র‌্যাব-২ এর অভিযান অব্যাহত থাকবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৫ ঘণ্টা, জুন ২১, ২০২১
এসজেএ/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa