ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭, ০৪ মার্চ ২০২১, ১৯ রজব ১৪৪২

জাতীয়

স্বর্ণ লুটের মামলায় মাদকের এডি গ্রেফতার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১১০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২০, ২০২১
স্বর্ণ লুটের মামলায় মাদকের এডি গ্রেফতার প্রতীকী ছবি

ঢাকা: স্বর্ণ লুটের অভিযোগে করা একটি মামলায় এস এম সাকিব হোসেন নামে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের এক কর্মকর্তা ও তার দুই সহযোগিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) দিনগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে বিষয়টি বাংলানিউজকে নিশ্চিত করেন কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. নুর আলম।

তিনি বলেন, ডাকাতির একটি মামলায় তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুরান ঢাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতারের পর মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) মামলার তিন আসামিকে আদালতের নির্দেশে তিন দিনের রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নিয়েছে কোতোয়ালী থানা পুলিশ।

আটক সাকিব মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মুন্সিগঞ্জ জেলা শাখার সহকারী পরিচালক (এডি) হিসেবে কর্মরত। অপর দুই আসামি হলেন- সেপাই আমিনুল ইসলাম ও সোর্স মো. হারুন।

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের গ্রেফতার কর্মকর্তা সাকিব হোসেন ও তার দুই সহযোগী সেপাই আমিনুল ও সোর্স হারুন নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে গত ০৭ জানুয়ারি রাজধানীর জিন্দাবাহার লেনের একটি স্বর্ণের দোকানের মাকিলকে তুলে নিয়ে যান। তারা ওই দোকানের ৯০ ভরি সোনা লুট করেন। এ ঘটনায় ১২ জানুয়ারি কোতোয়ালি থানায় ভুক্তভোগী স্বর্ণ ব্যবসায়ী একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ প্রথমে দোকানের একজন কর্মচারীসহ দু’জনকে গ্রেফতার করে। এরপর জিজ্ঞাসাবাদের পর ১৮ জানুয়ারি দুই কর্মচারী আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। তাদের দেওয়া জবানবন্দির ভিত্তিতে সাকিবসহ তার দুই সহযোগিকে গ্রেফতার করা হয়।

অভিযুক্ত সাকিবের গ্রামের বাড়ি যশোর জেলায়। তিনি ৩৪তম বিসিএস এর নন-ক্যাডার কর্মকর্তা হিসেবে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরে নিয়োগ পেয়েছিলেন। তিনি ছাত্র জীবনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বঙ্গবন্ধু হল শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ০১১০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২০, ২০২১
এসজেএ/এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa