ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭, ০৪ মার্চ ২০২১, ১৯ রজব ১৪৪২

জাতীয়

আহত ট্রাফিক সার্জেন্টকে দেখতে হাসপাতালে পুলিশ কমিশনার

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৯, ২০২১
আহত ট্রাফিক সার্জেন্টকে দেখতে হাসপাতালে পুলিশ কমিশনার

রাজশাহী: হামলায় আহত ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্টের শারীরিক অবস্থার খোঁজ-খবর নিয়েছেন রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক। ঘটনার পর মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুরে তিনি আহত সার্জেন্টকে দেখতে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে যান।

এ সময় তিনি আহতের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলেন এবং তার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে খোঁজ-খবর নেন। প্রয়োজনীয় সব চিকিৎসার জন্য ঊর্ধ্বতন পুলিশ কমকর্তাদের নির্দেশ দেন। এছাড়া দ্রুত সময়ের মধ্যে হামলাকারীদের শনাক্ত ও গ্রেফতারের জন্য নির্দেশ দেন।

এ সময় রাজশাহী মহানগর পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা রামেক হাসপাতালে উপস্থিত ছিলেন। আহত ট্রাফিক সার্জেন্ট বর্তমানে রামেক হাসপাতালের চার নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন।

হামলায় আহত ট্রাফিক পুলিশ সার্জেন্ট বিপুল কুমার ভট্টাচার্যের দুই হাতে গুরুতর জখম হয়েছে। এছাড়া শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত পেয়েছেন তিনি। দুপুরে তার হাতের এক্সরেসহ অন্য স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে।

এর আগে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রাজশাহীতে ট্রাফিক পুলিশের এ সার্জেন্টের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। মোটরসাইকেল চালকের মাথায় হেলমেট না থাকায় মামলা দিতে চেয়েছিলেন তিনি। এ কারণেই তার ওপর হামলার ঘটনা ঘটে।

রাজশাহী মহানগরের বিলশিমলা বন্ধ গেটের পাশে ঐতিহ্য চত্বরে এ হামলার ঘটনা ঘটে। সার্জেন্ট বিপুল কুমারের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করছিলেন ট্রাফিক কনস্টেবল ইসমাইল হোসেন। তবে তিনি অক্ষত রয়েছেন।

হামলার ঘটনার পর পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দু’জনকে আটক করে থানায় নিয়ে গেছে। ঘটনাস্থলের সামনেই এদের একজনের চায়ের দোকান, অন্যজন পাশের একটি ফার্নিচারের দোকানের কর্মচারী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, মাথায় হেলমেট ছাড়াই আসছিলেন এক যুবক। ট্রাফিক সার্জেন্ট তাকে থামিয়ে মোটরসাইকেলের কাগজ দেখতে চান। এছাড়া হেলমেট না থাকায় তিনি মামলা লিখতে শুরু করেন। তখন ওই যুবক মোটরসাইকেল নিয়ে ফুটপাতের ওপরে ওঠেন। এরপর সার্জেন্টের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে ফার্নিচারের দোকান থেকে কাঠের চেলা এনে আচমকাই পেটাতে শুরু করেন ট্রাফিক সার্জেন্টকে। এতে তিনি গুরুতর আহত হন এবং মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। পরে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে ওই যুবক মোটরসাইকেল ফেলে পালিয়ে যান। এ সময় তাকে দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ঘটনার পর পুলিশের হাতে আটক দু’জন জানিয়েছেন, অভিযুক্ত যুবকের নাম বেলাল। তার বাড়ি মহানগরের লক্ষ্মীপুরের ভাটাপাড়া এলাকায়। তিনি সামনের চায়ের দোকানেই আড্ডা দেন। তার সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য পুলিশ তাদের আটক করেছে।

রাজশাহী মহানগরের রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম বলেন, ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট বিপুলের দুই হাতে জখম হয়েছে। শরীরের অন্যান্য অংশেও আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আহত ট্রাফিক পুলিশ সার্জেন্ট একটু সুস্থ হলে তার সঙ্গে কথা বলে এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হবে।

এদিকে রাজশাহী মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (সদর) গোলাম রুহুল কুদ্দুস জানান, হামলাকারী যুবক মোটরসাইকেল ফেলে পালিয়েছেন। তাকে আটকের চেষ্টা চলছে। এছাড়া প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দু’জনকে আটক করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৯, ২০২১
এসএস/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa