ঢাকা, শুক্রবার, ৮ মাঘ ১৪২৭, ২২ জানুয়ারি ২০২১, ০৮ জমাদিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

‘ডিসেম্বরেই পূর্বাচলে আদি অধিবাসীরা প্লট পাবেন’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০২০
‘ডিসেম্বরেই পূর্বাচলে আদি অধিবাসীরা প্লট পাবেন’ অনুষ্ঠানে গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদসহ অন্যরা

ঢাকা: আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্প এলাকার আদি অধিবাসী ও ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে প্লট বরাদ্দ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ।  

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী প্রকল্প এলাকায় যারা স্থায়ী বাসিন্দা ছিল ও যারা ক্ষতিগ্রস্ত তাদের জন্য প্লট বরাদ্দ দেওয়া হবে।

এজন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও রাজউকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারী সমন্বয়ে দ্রুততম সময়ের মধ্যে যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়া শেষ করার জন্য নির্দেশনা দেন প্রতিমন্ত্রী।

সোমবার (৩০ নভেম্বর) সচিবালয়ে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে পূর্বাচল আবাসিক প্রকল্পে আদি অধিবাসীদের জন্য প্লট বরাদ্দ বিষয়ক এক সভায় তিনি এ কথা জানান।

গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী বলেন, যেসব প্লট মালিকানা পরিবর্তন বা অন্য কোনো কারণে খালি হয়েছে সেগুলোর তালিকা প্রস্তুত করতে তিনি নির্দেশনা দেন। অনেক ক্ষেত্রে দেখা গেছে কেউ একটি প্লট বরাদ্দ পাওয়ার পর অন্য কোনো প্লটের জন্য আবেদন করেছেন। পরবর্তীতে তার নামে আরেকটি প্লট বরাদ্দ দেওয়া হলেও আগের বরাদ্দ বাতিল করা হয়নি। এ ধরনের তথ্য হালনাগাদ পূর্বক খালি থাকা প্লটের একটি ডাটাবেজ প্রস্তুতির জন্য তিনি পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্পের পরিচালক ও রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যানকে নির্দেশনা দেন।  

শরীফ আহমেদ বলেন, বাণিজ্যিক প্লট বরাদ্দ দেওয়া সংক্রান্ত বিষয়ে হাইকোর্টে চলমান মামলার ব্যাপারে অ্যাটর্নি জেনারেলের সঙ্গে সাক্ষাৎ পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সভায় তিনি প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেন।

গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী বলেন, একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে এদেশের সাধারণ মানুষের কাছে আমার ব্যক্তিগত দায়বদ্ধতা রয়েছে। একই সঙ্গে একজন জনপ্রতিনিধি ও সরকারের প্রতিমন্ত্রী হিসেবেও জনসাধারণের কাছে আমার দায়বদ্ধতা রয়েছে। উপরন্তু পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্প এলাকায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য প্লট বরাদ্দ দিতে প্রধানমন্ত্রীও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের স্বার্থে এ কাজে কারো বিন্দুমাত্র শৈথিল্য বা গাফিলতি সহ্য করা হবে না।

রাজউকের সব কর্মকর্তা-কর্মচারী উদ্দেশে শরীফ আহমেদ বলেন, আপনারা জনগণের সেবক, প্রকৃত সেবার মনোভাব নিয়ে মানুষের জন্য কাজ করবেন। মানুষকে হয়রানিমুক্ত ও আন্তরিকতাপূর্ণ সেবার মাধ্যমে সন্তুষ্ট করার চেষ্টা করবেন। দায়িত্ব পালনে শৈথিল্য কিংবা ঔদাসীন্য প্রদর্শন থেকে বিরত থাকবেন। একই সঙ্গে সততা, নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবেন।

অনুষ্ঠানে গাজীপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য মেহের আফরোজ চুমকি, বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গাজী গোলাম দস্তগীর, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় ও রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২২ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০২০
জিসিজি/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa