ঢাকা, রবিবার, ৪ মাঘ ১৪২৭, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

সন্ধ্যার পর তরুণ-তরুণী ও শিক্ষার্থীরা ঘরের বাইরে থাকতে পারবে না

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৫, ২০২০
সন্ধ্যার পর তরুণ-তরুণী ও শিক্ষার্থীরা ঘরের বাইরে থাকতে পারবে না

মাদারীপুর: মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন বলেছেন, ‘সন্ধ্যা ৭ টার পরে তরুণ-তরুণী ও শিক্ষার্থীরা অভিভাবক ছাড়া বাইরে যেতে পারবে না। ’

মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) বিকেলে শিবচর উপজেলা সম্মেলন কক্ষে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, কোনো কারণ ছাড়া ‘ইয়াং’ ছেলে-মেয়ে ও শিক্ষার্থীরা বাইরে যেতে পারবে না। যেতে হলে অভিভাবকের সঙ্গে যাবে। এছাড়া চায়ের দোকানগুলোতে কোনো টেলিভিশনও থাকবে না। কারণ এই টেলিভিশন আড্ডা তৈরি করে।

ড. রহিমা খাতুন বলেন, ইদানিং উঠতি বয়সী ছেলে-মেয়ে এবং শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া বাদ দিয়ে ঘুরে বেড়াতে দেখা যাচ্ছে। সন্ধ্যা থেকে রাত পর্যন্ত আড্ডা চলে ঘরের বাইরে। বাজারের চায়ের দোকানে চলে টেলিভিশন। বয়স্ক, তরুণ একযোগে আড্ডা চলে এসব দোকানে। এতে যে শিক্ষার্থী আছে তারা পড়াশোনা করে না। আর যারা পড়াশোনা করে না কৃষক বা কাজ করে তারা অনেক সময় ধরে এখানে বসে থেকে অলস সময় কাটায়। ফলে তার পরিবারে কী হচ্ছে তার ছেলে-মেয়ে পড়াশোনা করছে কী না সেদিকে খেয়ালও রাখে না।

তিনি বলেন, কিশোর গ্যাং রোধসহ আইনশৃঙ্খলা ও করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি সন্ধ্যার ৭টার পরে কোনো শিক্ষার্থী ঘরের বাইরে থাকতে পারবে না। জেলার বিভিন্ন স্থানে সন্ধ্যার পরে ইয়াং ছেলেদের আড্ডা দিতে দেখা যায়। রাস্তার পাশে, ব্রিজ-কালভার্ট এর ওপর দাঁড়িয়ে মোবাইলে গেমস খেলে। ক্রিকেটের জুয়া নিয়ে ব্যস্ত থাকে। মোবাইল লুডু খেলা নিয়ে জুয়া চলে। যা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। এগুলো বন্ধ করতে এই উদ্যোগ।

ড. রহিমা খাতুন বলেন, যুবকদের প্রতি যত্নশীল হতে হবে। আর এখন যত্নশীল না হলে এই যুব শক্তিই দেশের জন্য বিপদ। তাই যেকোনো মূল্যে যুব শক্তিকে আমাদের কাজে লাগাতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৫, ২০২০
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa