ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ বৈশাখ ১৪৩১, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৬ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

টানা তৃতীয়বার স্পিকার হতে যাচ্ছেন শিরীন শারমিন?

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৮
টানা তৃতীয়বার স্পিকার হতে যাচ্ছেন শিরীন শারমিন? ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী (ফাইল ছবি)

ঢাকা: রাষ্ট্রের তৃতীয় ক্ষমতাধর ব্যক্তি হিসেবে পুনরায় নিয়োগ পেতে পারেন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। আবারও নিয়োগ পেলে এ নিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো স্পিকার হবেন তিনি। 

নবম সংসদের শেষভাগে এসে নারী স্পিকার হিসেবে ইতিহাসের পাতায় নাম লেখান শিরীন শারমিন চৌধুরী। তার আগে জাতীয় সংসদে কোনো নারী সদস্যের স্পিকার হওয়ার নজির নেই।


 
ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী নবম সংসদের প্রায় নয় মাস এবং দশম সংসদের পুরো সময় স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রংপুর-৬ আসন থেকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন বর্তমান স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী। এই আসনটি মূলত আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার শ্বশুর বাড়ির এলাকায় হওয়ায় এখান থেকে সাধারণত প্রধানমন্ত্রীই নির্বাচন করে থাকেন। তবে এবার আসনটি শিরীন শারমিন চৌধুরীকে ছেড়ে দেন বঙ্গবন্ধু কন্যা।
 
টানা তৃতীয়বার শিরীন শারমিন চৌধুরী স্পিকার হচ্ছেন এই ইঙ্গিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২৩ ডিসেম্বর পীরগঞ্জে নির্বাচনকেন্দ্রিক জনসভায় দেওয়া বক্তৃতায় উল্লেখ করেছেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রংপুর-৬ আসন থেকে ২ লাখ ৩৪ হাজার ৪২৬ ভোট পেয়ে সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন শিরীন শারমিন। তাছাড়া শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন দল আওয়ামী লীগ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে পুনরায় সরকার গঠন করতে যাচ্ছে। তাই ধরেই নেওয়া যায় তিনি পুনরায় স্পিকার হচ্ছেন।
 
নতুন বছরের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন নতুন সরকার গঠিত হবে। একাদশ সংসদ নির্বাচনের পর নির্বাচিত সদস্যদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করে গেজেট প্রকাশ করবে নির্বাচন কমিশন। এরপরেই শুরু হবে সংসদ সদস্যদের শপথ অনুষ্ঠান। জাতীয় সংসদে শপথ কক্ষ এরইমধ্যে প্রস্তুত করা হয়েছে। আগামী ৩ জানুয়ারি শপথ হতে পারে বলে সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে।
 
এরপর জানুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহের মধ্যে মন্ত্রিপরিষদ গঠন হয়ে যাবে। জানুয়ারির মধ্যভাগের পর পরই একাদশ সংসদের প্রথম অধিবেশন বসতে যাচ্ছে। কার্যপ্রণালী বিধি অনুযায়ী সাধারণ নির্বাচনের পর অনুষ্ঠিত প্রথম বৈঠকে স্পিকার নির্বাচন করার বিধান রয়েছে।
 
জাতীয় সংসদের কোনো স্পিকার পুনরায় সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হলে তিনি অন্যান্য সংসদ সদস্যদের শপথ পাঠ করাবেন। আর সংসদ সদস্য হিসেবে স্পিকারকে শপথবাক্য পাঠ করাবেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার অথবা রাষ্ট্রপতি মনোনীত কোনো ব্যক্তি।
 
স্পিকার নির্বাচন প্রক্রিয়া
নির্বাচনের জন্য নির্ধারিত সময়ের কমপক্ষে এক ঘণ্টা আগে যেকোন সংসদ সদস্য সচিবকে সম্বোধন করে লিখিতভাবে একটি প্রস্তাবের নোটিশ দেবেন যে, স্পিকার হিসেবে অন্য কোনো সদস্যকে নির্বাচিত করা হোক। এরপর নোটিশটি তৃতীয় একজন সদস্য কর্তৃক সমর্থিত হবে এবং প্রস্তাবিত সদস্যের একটি বিবৃতিও এই নোটিশের সঙ্গে সংলগ্ন থাকবে যে, নির্বাচিত হলে তিনি স্পিকার হিসেবে কাজ করতে সম্মত আছেন। তবে শর্ত থাকে যে কোনো সদস্য নিজের নাম প্রস্তাব করতে পারবেন না বা তার নাম প্রস্তাব করা হলে তিনি নিজে সমর্থন করতে পারবেন না। আরও শর্ত থাকে যে কোনো ব্যক্তি তার নিজের নির্বাচনের সময় সভাপতিত্ব করবেন না। তবে চাইলে তিনি প্রস্তাবটি প্রত্যাহার করতে পারবেন, সেক্ষেত্রে এই বিষয়ের মধ্যেই তার বক্তব্য সীমাবদ্ধ থাকবে। যথাযথভাবে প্রস্তাব উত্থাপিত ও সমর্থিত প্রস্তাবগুলোকে উত্থাপিত হওয়ার ক্রমানুসারে ভোটে দেওয়া হবে এবং প্রয়োজন বোধে বিভক্তি ভোটের মাধ্যমে সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে। কোনো প্রস্তাব গৃহীত হয়ে গেলে সভাপতি অবশিষ্ট প্রস্তাবগুলোকে ভোটে না দিয়ে ঘোষণা করবেন গৃহীত প্রস্তাব উল্লিখিত সদস্য স্পিকার নির্বাচিত হবেন। এরপর সংবিধানের তৃতীয় তফসিলে প্রদত্ত সংসদের স্পিকারের জন্য নির্ধারিত ফরমে শপথ গ্রহণ করবেন বা ঘোষণা করবেন এবং স্বাক্ষর করবেন। স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকারকে শপথ পাঠ করাবেন রাষ্ট্রপতি।
 
২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল তৎকালীন জাতীয় সংসদের স্পিকার মো. আবদুল হামিদ রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ নেওয়ার পর স্পিকারের পদটি শূন্য হয়। এরপর সংরক্ষিত সংসদ সদস্য শিরীন শারমিন চৌধুরী একই বছরের ৩০ এপ্রিল স্পিকার হিসেবে নির্বাচিত হয়ে ২৪ জানুয়ারি ২০১৪ পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। এরপর বিএনপিসহ একটি রাজনৈতিক জোটের নির্বাচন বর্জনের মধ্য দিয়ে দশম সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আওয়ামী লীগ পুনরায় সরকার গঠন করলে শিরীন শারমিনকে দ্বিতীয়বারের মতো স্পিকার নির্বাচিত করা হয় এবং ২০১৪ সালের ২৪ জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত তিনি স্পিকার হিসেবে দায়িত্বরত রয়েছেন।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৪১৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৮
এসএম/আরআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
welcome-ad