ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ আশ্বিন ১৪২৭, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫ সফর ১৪৪২

জাতীয়

১০ টাকা কেজি চালের দোকানে উপচে পড়া ভিড়

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৫২ ঘণ্টা, মার্চ ১১, ২০১৮
১০ টাকা কেজি চালের দোকানে উপচে পড়া ভিড় লাইনে দাঁড়িয়ে ১০ টাকার চাল কিনছেন

চাঁপাইনবাবগঞ্জ: সারাদেশের মতো চাঁপাইনবাবগঞ্জে বেশ কিছুদিন থেকে ১০ টাকা কেজি দরের চাল বিক্রি শুরু হয়েছে। সংশ্লিষ্ট ডিলারদের দোকানে চাল নিতে আসা কার্ডধারীদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে।

সরকারি ও বেসরকারি খাতে চালের বিপুল আমদানিও হচ্ছে। চালের দাম বৃদ্ধি ঠেকাতে এবং গরিব মানুষের সুবিধার কথা বিবেচনা করে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়।

ডিলাররা এ চাল উত্তোলন করে বিক্রি করা শুরু করেছে। অতিদরিদ্র ৫০ লাখ পরিবারকে প্রতি মাসে ৩০ কেজি করে এ চাল দেয়া হবে।

সারাদেশে জেলা পর্যায়ে ৩০ টাকা কেজি দরে খোলাবাজারে (ওএমএস) চাল বিক্রির কার্যক্রমও শুরু হয়েছে। যেকোনো ব্যক্তি পাঁচ কেজি করে ওই চাল কিনতে পারবেন। প্রাথমিকভাবে জেলা পর্যায়ে হলেও পরে উপজেলায় ওই চাল বিক্রি কার্যক্রম শুরু করবে খাদ্য অধিদপ্তর। মূলত ট্রাকে করে ডিলাররা ওই চাল বিক্রি করবেন।

খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় মার্চ, এপ্রিল, সেপ্টেম্বর, অক্টোবর ও নভেম্বর এই পাঁচ মাস চাল বিক্রি করা হবে। এ কর্মসূচির জন্য বছরে ৭ লাখ ৫০ হাজার মেট্রিক টন চাল দরকার হবে। ২০১৬ সাল থেকে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি শুরু হয়।

রোববার বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার মহারাজপুর এমপি মোড় ঘোড়া স্ট্যান্ডে দেখা যায় নারী পুরুষ লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে চাল কিনছে। সবার চোখেমুখে ছিল আনন্দের ছাপ। চাল নিতে আসা চকটলার রোজিনা জানান, ১০ কেজিতে হারা ৩০ কেজি চাল পাইনু, হারা গরীব মানুষ, অত দাম দিয়া চাইল কিনা খ্যাইতে হাঁরঘে খুব কষ্ট হয়।

ডিলার মো. আব্দুস সামাদ বলেন, ১০ টাকা কেজি চাল আমরা বিক্রি করছি দরিদ্র মানুষের কাছে। যাদের কাছে চাল নেবার কার্ড আছে শুধুমাত্র তাদের কাছে ১০ টাকা কেজি দরে ৩০ কেজি চাল বিক্রি করছি।

তিনি আরো বলেন, এখন পর্যন্ত আমরা ৭৫৫ জন কার্ডধারীর কাছে চাল বিক্রি করছি। যাদের কার্ড নাই তাদের কাছে ভোটার আইডি নিয়ে কাগজপত্র জমা দিচ্ছি কার্ড পেলে তাদের কাছেও চাল বিক্রি করা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪৬ ঘণ্টা, মার্চ ১১, ২০১৮
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa